প্রকৌশলীকে দেখে নেওয়ার হুমকি বিএনপি নেতার

শ্রীনগরে রাস্তা সংস্কারে ব্যাপক অনিয়ম
শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈগাও বাজার থেকে আব্দুর জব্বার মেডিকেল কলেজ পর্যন্ত তিন কিলোমিাটর রাস্তার সংস্কার কাজে ব্যাপক অনিয়ম ও নিন্ম মানের উপকরণ ব্যবহারের অভিযোগে উঠেছে। একারণে কাজ বন্ধ রাখতে বলায় প্রকল্পটির তদারককারী কর্মকর্তা শ্রীনগর উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী মো ঃ নুরুল ইসলামকে দেখে নেওয়ার হুমকি দিয়েছে ঠিকাদরী প্রতিষ্ঠান মিজার এন্ড ব্রাদার্সের স্বত্তাধিকারী ও উপজেলা বিএনপির এক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম কাননের ভাই স্থানীয় বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান। শ্রীনগর উপজেলা স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের সহকারী প্রকৌশলী নুরুল ইসলাম জানান, তিনি নিষেধ করলেও কাজ বন্ধতো দুরের কথা মিজানুর রহমান তাকে হুমকি দিয়ে বলেছে বিএনপি ক্ষমতায় থাকলে তোর মতো অফিসারকে তোয়াক্কা করার সময় থাকতোনা।

উপজেলা স্থানীয় সরকার ও প্রকৌশল অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, ওই তিন কিলোমিটার রাস্তা সংস্কারে জন্য ১০ ফুট প্রস্থ ও ২৫ মিঃমিঃ পুরুত্ব ও বিপিসি বিটুমিন ব্যবহারের শর্ত দিয়ে দরপত্র আহবান করা হয়। সকল শর্ত মেনে তিনটি শিডিউলে ৮৭ লাখ টাকার কাজ পায় মিজান এন্ড ব্রাদার্স। কিছু দিন পূর্বে প্রতিষ্ঠানটি রাস্তা প্রসস্থ করার জন্য নিন্ম মানের উপকরণ ব্যবহার করে এবং ইরানী বিটুমিন দিয়ে ঢালাই শুরু করে। শর্ত অনুযায়ী কাজ না করায় উপজেলা সহকারী প্রকৌশলী কাজ বন্ধ করার নির্দেশ দেন এবং শর্ত মেনে কাজ করার অনুরোধ করেন। এতে মিজানুর রহমান ক্ষেপে যান এবং নুরুল ইসলামকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। পরে গত পরশুদিন রাতের আধারে আবুল কালাম কানন উপস্থিত থেকে প্রায় ৫০০ ফুট রাস্তার ঢালাইয়ের কাজ সেরে ফেলেন।

অপর একটি সূত্র জানায়, মিজান এন্ড ব্রাদার্সের স্বত্তাধিকারী হিসাবে মিজানুর রহমানের নাম উল্লেখ থাকলেও এর প্রকৃত মালিক বিএনপি নেতা আবুল কালাম কানন। গত ২ বছর পূর্বে ওই প্রতিষ্ঠানের উপজেলার কামারগাও এলাকার আরেকটি কাজে বাধা দেওয়ায় উপজেলার অন্য এক সহকারী প্রকৌশলীকে আবুল কালাম কাননের সামনে শারীরীক ভাবে লঞ্চিত করেন মিজান। এঘটনায় ওই প্রকৌশলী থানায় লিখিত অভিযোগ দিলে পুলিশ আবুল কালাম কাননকে গ্রেপ্তার করে। কাজের অনিয়ম ও উপজেলা সহকারী প্রকৌশলীকে হুমকির ব্যাপারে জানতে চাইলে আবুল কালাম কানন অভিযোগ অস্বীকার করেন।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.