সৌদিতে স্বদেশির হাতে বাংলাদেশি খুন!

ঝগড়ার জের ধরে সৌদি আরবে আবদুল মোতালেব (৪০) নামের এক ব্যক্তিকে খুন করার অভিযোগ উঠেছে আরেক বাংলাদেশি রুবেলের বিরুদ্ধে। গত রোববার বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় সৌদি আরবের দাম্মাম শহরে একটি বাড়িতে মোতালেবকে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয়।

নিহত মোতালেবের বাড়ি সাভারের ভাকুর্তা ইউনিয়নের খাগুরিয়া গ্রামে। অভিযোগ থাকা রুবেলের বাড়ি বিক্রমপুরে।

নিহত মোতালেবের বাবা আরাফাত আলী জানান, প্রায় ১০ বছর আগে পরিবারের অর্থকষ্ট দূর করার জন্য সৌদি আরবের উদ্দেশে দেশ ছাড়ে তাঁর ছেলে। সেখানে মোতালেব একটি ওয়ার্কশপে কাজ করত।

নিহতের বাবা জানান, ছেলে বিদেশ যাওয়ার পর তাঁদের পরিবারের দিন ভালোই চলছিল। বেশ কয়েকবার ছুটিতে দেশে এসেছিলেন আবদুল মোতালেব। কয়েক মাস আগে সর্বশেষ এসেছিলেন। ছুটি শেষে আবারও ফিরে গেছেন কর্মক্ষেত্রে। কয়েক দিন আগে স্ত্রী মরজিনা আক্তারের সঙ্গে কথা হয়েছিল আবদুল মোতালেবের। সাত বছরের একমাত্র সন্তান মুন্নির খোঁজও নিয়েছিলেন তিনি।

আরাফাত আলী বলেন, মোতালেবের সঙ্গে একই বাসায় একটি কক্ষে সাভারের আমিনবাজারের একজন, মুন্সীগঞ্জের বিক্রমপুরের একজন ও কেরানীগঞ্জের একজন বসবাস করতেন। তিনি জানান, গত রোববার বিক্রমপুরের রুবেল নামের ওই ব্যক্তির সঙ্গে ঝগড়া হয় আবদুল মোতালেবের। এর জের ধরে সেদিন সৌদি আরব সময় বিকেলে (৫টায়) ও বাংলাদেশ সময় রাত ৮টায় মোতালেবকে রড দিয়ে ঘরের মধ্যে পিটিয়ে হত্যা করে রুবেল।

খবর পেয়ে সৌদির পুলিশ রুবেলকে আটক করে। পরের দিন সোমবার আবদুল মোতালেবের সহকর্মীরা সৌদি আরব থেকে মুঠোফোনে আবদুল মোতালেবের মৃত্যুর খবর জানান।

খবর পেয়ে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা মোতালেবের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন। কয়েক দিনের মধ্যে সৌদি আরব থেকে তাঁর লাশ দেশে আসবে বলে জানিয়েছেন পরিবারের সদস্যরা।

এনটিভি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.