শ্রীনগরে প্রতারণা করে প্রবাসী স্বামীর সর্বস্ব লুট

আরিফ হোসেন: শ্রীনগরে প্রতারণা করে সিংগাপুর প্রবাসী স্বামীর সর্বস্ব লুটে নিয়ে সটকে পরেছে তার স্ত্রী। প্রতারণা করে হাতিয়ে নেওয়া অর্থ যাতে ফেরত দিতে না হয় এজন্য গোপনে স্বামীকে তালাকের নোটিশ পাঠিয়েছে।

স্থানীয়রা জানায়, ২০১৫ সালের মার্চ মাসের প্রথম দিকে শ্রীনগর উপজেলার কুকুটিয়া ইউনিয়নের মুসলিমপাড়া গ্রামের আনোয়ার সরদারের বড় ছেলে সিংগাাপুর প্রবাসী মো ঃ সানোয়ার সরদার দীর্ঘদিন প্রেম করে পাশ^বর্তী টুনিয়ামান্দ্রা গ্রামের মো: লুৎফর রহমানের মেয়ে মেঘলা আক্তারকে গোপনে বিয়ে করেন। এর পরপরই সানোয়ার তার বিয়ের বিষটি পরিবারকে না জানিয়ে সিংগাপুর চলে যায়। সিংগাপুর থেকে সানোয়ার তার কষ্টার্জিত সকল অর্থ স্ত্রী মেঘলা আক্তারের কাছে পাঠাতে থাকে। মেঘলা সরকারী শ্রীনগর কলেজের স্নাতক তৃতীয় বর্ষে ছাত্রী। কলেজের বন্ধুদের নিয়ে বিদেশী স্বামীর অর্থ দুহাতে উড়াতে থাকে মেঘলা। বয়ফ্রেন্ডদের সাথে ঘুরেবেড়াতে থাকে বিনাবাধায়। স্ত্রীর বেপরোয়া জীবন-যাপনের খবর এক সময় সানোয়ারের কানে এসে পৌছে।

এ খবরে সানোয়ার প্রথমে মুষরে পরলেও পরে প্রতিবাদ জানায়। সানোয়ারের প্রতিবাদই কাল হয়ে দাড়ায়। কয়েকদিনের ব্যবধানে মেঘলা তার স্বামীর বাড়ীর ঠিকানায় তালাক নামা পাঠিয়ে দেয়। বিষয়টি সানোয়ারের পরিবার সানোয়ারকে জানালে সে তার স্ত্রীর কাছে বিদেশ থেকে পাঠানো সকল অর্থ ফেরত চায়। ফের টাকা দাবী করলে সানোয়ারকে নারী নির্যাতনের মামলা দিয়ে সায়েস্তা করা হবে বলে হুমকি প্রদান করে মেঘলা।

এব্যাপারে মেঘলা আক্তারের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, জানতে চাইলে সে জানান সানোয়ার আমার কাছ থেকে কাবিন নামায় জোড় পূর্বক স্বাক্ষর নিয়েছে। বেপরোয়া জীবন যাপনের বিষয়টি সঠিক নয় আর সে আমার নামে কোন টাকা পয়সা পাঠায়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.