স্বজনদের কাঁদিয়ে, চলে গেলেন আযম – না ফেরার দেশে

কামাল আহম্মেদ: মিরকাদিম পৌরসভাস্থিত রিকাবীবাজার(পশ্চিম পাড়া) গ্রামের বাসিন্ধা মরহুম সালাহউদ্দিন সাহেবের তৃতীয় পুত্র জসিমউদ্দিন আযম(৫২) শুক্রবার ভোর ৪.৩০ মিঃ নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন(ইন্নালি—–রাজেউন)।

চেতনায় একাত্তর সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য,ভাস্কর সাহিত্য সংস্কৃতি গোষ্টির সাংগঠনিক সম্পাদক, মিরকাদিম পৌর নাগরিক কমিটির সাহিত্য সম্পাদক, মিরকাদিমের কথা পত্রিকার নিবার্হী সম্পাদক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব নিঃসন্তান জসিমউদ্দিন আযম মৃত্যুকালে একমাত্র স্ত্রী,ভাই,বোন,বন্ধু-বান্ধব এবং বহু গুনগ্রাহী রেখে যান।

তার মৃত্যুতে মিরকাদিম পৌরবাসীর মাঝে শোকের ছায়া নেমে আসে। তার প্রথম নামাজে জানাজা বেলা ১২.৩০ মি: গোপাল নগর ঈদগাঁ মাঠে এবং দ্বিতীয় জানাজা বাদ জুম্মা পশ্চিমপাড়া জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়। দলমত নিবির্শেষে এলাকার সর্বস্তরের লোকজন নামাজে জানাজায় অংশ নেন।

মরহুমের আত্বার মাগফেরাত কামনা এবং পরিবারবর্গের প্রতি সমব্যদনা জানিয়ে এক শোক বাতার্য় চেতনায় একাত্তর সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা কামাল আহম্মেদ বলেন, ভাস্করের মিরকাদিররতœ পদক-এ ভ’ষিত মিরকাদিমের সৃজনশীল ব্যক্তি নিঃঅহংকার জসিমউদ্দিন আযম এর অকাল মৃত্যুতে মিরকাদিমবাসী একজন ভালো মনের মানুষকে হারারো, মিরকাদিমের সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অপূরনীয় ক্ষতি সাধিত হলো, যা কখনো পূরন করা সম্ভব নয়। আমি মরহুমের আত্বার শান্তি ও শোকাহত পরিবারের প্রতি সহানুভুতি প্রকাশ করছি।

আমেরিকা থেকে এক বার্তায় পৌর মেয়র মোঃ শহিদুল ইসলাম শাহীন বলেন-কচি-কাকলী কিন্ডার গার্ডেনের শিক্ষক ছিলেন জসিমউদ্দিন আযম, ছিলেন আমার আত্বীয় তার এই দূরারোগ্য রোগ সম্পর্কে আমি অবগত ছিলাম, যা নিরাময় সম্ভব ছিল না, এটা আমি আযমকে বুজতে দেই নাই।

আযম ছিল দায়িত্ব পালনে নিষ্টাবান এবং সুন্দর মনের মানুষ, মহান আল্লাহতায়ালা যেন তাকে বেহেস্ত দান করেন।

অনলাইন মিডিয়াসহ বিভিন্ন মাধ্যমে মরহুমের আত্বার মাগফেরাত কামনা করে শোকবার্তা প্রকাশ করেন—

আলিম আল রশিদ, মোঃ আলী, মোঃ হোসেন মোললা, মাসুদ ফকরী খোকন, সৈয়দ মোখলেসুর রহমান, বীরমুক্তিযোদ্ধা শাহাবুদ্দিন, বীরমুক্তিযোদ্ধা কেফায়েতুল্লা, কানাডা প্রবাসী আবু বাক্কার, বেলজিয়াম প্রবাসী হুমায়ূন মাকসুদ হিমু, চট্রগ্রাম থেকে সিউলী শবনম, কুয়েত প্রবাসী বীরমুক্তিযোদ্ধা কুতুবউদ্দিন, নূর হাসান মোললা, বিরহী মোক্তার, নবোদয়ের ম.মনিরুজ্জামান শরীফ, পরিচালক জাকির হোসেন, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সূজন, মাজহারুল ইসলাম, গায়ক সৈয়দ মোতালেব, সৌরব আহম্মেদ জনি, অভিনেতা নাজির ঢালী, অভিনেত্রী জিতু, জুনিয়র ভাস্করের শায়ন আহাম্মেদ জুম্মানসহ বহু ব্যক্তিবর্গ।

সম্পাদক-চেতনায় একাত্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.