‘তাহসান-মিথিলার ডিভোর্স’: ফেসবুকে ঝড়

দীর্ঘদিন ধরেই গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে, জনপ্রিয় তারকা জুটি তাহসান-মিথিলা তাদের সম্পর্কের বিচ্ছেদ ঘটিয়েছেন। এটাকে গুঞ্জন বা গসিপ যাই বলি না কেন, ইস্যুটা কিন্তু নতুন নয়।

আর গতকাল রাত থেকে ফেসবুকে এই খবরটি আরো বেশি উত্তাপ ছড়ায় এই জুটির ভক্তদের মাঝে। অনেকেই ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেওয়া শুরু করেন ডিভোর্সের ঘটনা নিয়ে। সেই অসংখ্য ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে কিছু নির্বাচিত স্ট্যাটাসের পাঠকদের জন্য প্রকাশ করা হল।

লামিশা হায়াত আরশি লিখেছেন, ‘তাহসান মিথিলার নাকি ডিভোর্স হয়ে গেছে..? মানতে পারছিনা..এমন কেন হলো…?’

তাইফ রহমান ধ্রুব লিখেছেন, “তাহসান মিথিলার” ডিভোর্স হয়েছে. তাদের চেয়ে বেশি কষ্ট পাচ্ছে বাংলাদেশের ফেসবুক ব্যবহারকারীরা। তাদের মন চাইছে আলাদা হয়েছে।’

সাদিয়া চৌধুরী লিখেছেন, ‘তাহসান- মিথিলার ডিভোর্স Is it true news?? omg can’t blv, এদের মতো কাপলের ডিভোর্স হলে আর কিসের কি Damn it…’

ইশিকা আলবিনা বৃষ্টি লিখেছেন, ‘আমি মানতে পারছি না.. তাহসান মিথিলার ডিভোর্স, সত্যি কি ওদের বিচ্ছেদ ঘটলো…’

প্রিয়া লিখেছেন, ‘আমার আইকন কাপল ছিলেন আপনারা..তাহসান মিথিলার ডিভোর্স এটা মাথায় আনতেই আমার খারাপ লাগছে..সত্যি আমি আমি আপনাদের কাওকেই অন্য কারো সাথে ভাবতেই পারিনা…আমি সত্যিই ভাষা হারাই ফেলছি। আমি মন থেকে চাই এই নিউজটা ভুয়া হোক। আমি চাই আমাদের ফেভ কাপল থেকে আমরা আরো অনেক কিছু শিখতে’

নূরআলম মাহি লিখেছেন, ‘তাহসান-মিথিলার জুটি ভেঙ্গে গেল। ডিভোর্স হয়ে গেল। মিথিলা ৩০২ ধারা মামলাও করেছে তাহসান এর বিপক্ষে। . . এর চেয়ে খারাপ সংবাদ আর কি হতে পারে,,,,,?’

তাদের ঘনিষ্ট সূত্রে জানা যায়, তারা দুজনই আলাদা থাকছেন বেশ কয়েক মাস ধরে। শুধু তাই নয়, গত ২০১৪ সাল থেকেই তাদের সম্পর্কের টানাপোড়েন চলছে। কিছুদিন আগে নিজেদের বিচ্ছেদের গুঞ্জন বিষয়ে মিথিলা বলেছিলেন, তাদের সম্পর্কের বিষয় নিয়ে মিডিয়ার মাথা না ঘামালেও চলবে।

মিথিলার বক্তব্য ছিলো, ‘কে কি বললো ওগুলো নিয়ে আমি একদমই ভাবি না। মানুষের কথা শোনার সময় আমার নেই। তারা তো কত কথাই বলবে! আমার লাইফ একটা রুটিনে চলে। আমি আমার কাজ আমি করে যাচ্ছি। আমি শুধু সবাইকে এটাই বলব, আমার যদি কিছু বলার থাকে আমরা সোচ্চার হয়ে সবলভাবে বলব। কেনো লুকোছাপার কিচ্ছু নেই।

বিডিলাইভ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.