সিদ্ধিরগঞ্জে শাহীন ব্যাপারীর দাফন সম্পন্ন

নেপালের কাঠমান্ডুতে ইউএস বাংলার উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের ঘটনায় নিহত শাহীন ব্যাপারীকে নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ পাইনাদি কেন্দ্রীয় কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

সোমবার (২৬ মার্চ )রাত সাড়ে ১১টার দিকেসিদ্ধিরগঞ্জ পাইনাদি কেন্দ্রীয় কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

এর আগে রাত সোয়া ৯টায় শাহীন ব্যাপারীর মরদেহ সিদ্ধিরগঞ্জের মিজমিজি পূর্বপাড়া মজিববাগ এলাকায় জাহানারা মঞ্জিল বাড়িতে পৌঁছে। পরে রাত ১০টা ৫০মিনিটে সিদ্ধিরগঞ্জ কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদে জানাজা হয়। জানাজায় কয়েক হাজার লোক অংশগ্রহণ করেন।

১৪ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান শাহীন ব্যাপারী।

সোমবার বিকেল পৌনে ৫টার দিকে তার মৃত্যুর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন চিকিৎসকরা। তিনি ঢাকা মেডিকেল (ঢামেক) কলেজ হাসপাতালে লাইফ সাপোর্টে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

গেলো ১৮ মার্চ বিকেলে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে করে শাহীন ব্যাপারীকে দেশে আনা হয়। এরপর থেকে তিনি ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন ছিলেন ।

শাহীন ব্যাপারী মুন্সিগঞ্জ জেলার লৌহজং থানার বান্দেগাঁও এলাকার মৃত শফিউল্লা ব্যাপারীর পুত্র। শাহিন ব্যাপারী দীর্ঘ ১৫বছর যাবৎ সিদ্ধিরগঞ্জের মজিববাগ এলাকায় বাবা-মা, স্ত্রী ও এক কন্যা নিয়ে বসবাস করতেন। তার স্ত্রী নাম রিমা আক্তার (৩২) ও কন্যা সূচনা (১০)

শাহিনের ছোট ভাই চঞ্চল ব্যাপারী জানান, শাহীন ব্যাপারী বাংলাদেশ শান্তি সংঘের সদস্য এবং পুরান ঢাকার সদরঘাট এলাকার বিক্রমপুর গার্ডেন সিটিতে মেসার্স করিম অ্যান্ড সন্স নামের একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কোম্পানি থেকে বার্ষিক আনন্দভ্রমণে নেপাল গিয়ে দুর্ঘটনার কবলে পড়েন।

১২ মার্চ ইউএস বাংলা এয়ার লাইন্সের উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৫০ জন, এরমধ্যে বাংলাদেশির সংখ্যা ২৭ জন। এছাড়া আহত বাকি ৯ জন যাত্রীকে দেশে ও দেশের বাহিরে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

দ্য রিপোর্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.