সিরাজদিখানে খ্রীষ্টান সম্প্রদায়ের ‘ইষ্টার সানডে’ উদযাপন

নাছির উদ্দীন : ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশ ও আনন্দ আয়োজনের মাধ্যমে মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদীখানের শুলপুরে পালিত হয়েছে খ্রীষ্টান সম্প্রদায়ের দ্বিতীয় বৃহত্তম উৎসব পবিত্র ইষ্টার সানডে। ইষ্টার সানডে উপলক্ষে উপাসনালয়সহ বাসা-বাড়ি সাজিয়েছেন খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বীরা।

জেলার একমাত্র গীর্জা সিরাজদিখান উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের শুলপুর গ্রামে অবস্থিত ‘সাধু যোাশেফ গির্জায়’ গতকাল রোবার সকাল ৯ টায় সমবেত প্রার্থনায় কামনা করা হয়েছে বিশ্বকল্যাণ। প্রার্থনা পরিচালনা করেন সাধু যোাশেফ গির্জার ফাদার ফাদার ড. লিন্টু ফ্রান্সিস ডি’ কস্তা ।

ফাদার ড. লিন্টু ফ্রান্সিস ডি’ কস্তা বলেন, ‘চল্লিশ দিনের উপবাস পালন শেষে এ দিনে বিশ্বের সব খ্রিস্টভক্তদের জীবনে বয়ে আনে নির্মল আনন্দ ও শান্তি। গুড ফ্রাইডেতে বিপথগামী ইহুদীরা তাকে ক্রুশবিদ্ধ করে হত্যা করেছিল। মৃত্যুর তৃতীয় দিবস অর্থাৎ রোববার তিনি মৃত্যু থেকে জেগে উঠেছিলেন। মৃত্যুকে জয় করে যিশু সকল ক্লান্তি দূর করার জন্য আবারও মানুষের মাঝে শান্তি ফিরে আসেন। এ দিনটিকেই আমরা ইষ্টর সানডে হিসেবে পালন করি ।’

প্রার্থনার পাশাপাশি চলে ধর্মীয় সংগীত পরিবেশনা, প্রসাদ বিতরন ও আলোচনা সভা। আলোচনা সভায় পবিত্র ষ্টার সানডে’র গুরত্ব ও মানবজীবনে তার প্রয়োগ সম্পর্কে গুরগম্ভীর দিক নির্দেশনামূলক আলোচনা করা হয়।

আমেরিকান প্রবাসী মাইকেল রোজারিও জানান, ‘যিশু খ্রিষ্ট তিনদিন মৃত থাকার পর বছরের এই দিনে পুনরায় জীবন ফিরে পান। সেই থেকে আমরা খ্রীষ্টান ধর্মের অনুসারীরা দিনটিকে যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করে থাকি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.