কে এই রহস্যময়ী নারী!

গায়ের রং শ্যামলা, মাথায় স্কার্ফ, কাঁধে সাদা ব্যাগ ও হাতে কাগজ-কলম। বয়স আনুমানিক ত্রিশ। সুপ্রিমকোর্টের এনেক্স ভবনের সামনে অবস্থিত গ্রিক দেবীর ভাস্কর্যের কাছে অবস্থান নিয়ে শুধু লিখেই যাচ্ছেন।

ভাস্কর্য পাহারায় নিয়োজিত দুই পুলিশ সদস্য জানান, মহিলাটি প্রতি কর্মদিবসে সকালে আসেন আবার বিকালে চলে যান। এ সময়ের মধ্যে তিনি শুধু লিখতেই থাকেন। কেউ কিছু জিজ্ঞেস করলে কোনো উত্তর দেন না।

তবে মাঝে মধ্যে সুপ্রিমকোর্টের লিগ্যালএইড অফিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলেন। সারা দিন যা লিখেন, তা বিকালে লিগ্যাল এইড অফিসের ডাস্টবিনে ফেলে যান। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, রহস্যময়ী এ নারী টাঙ্গাইল জেলার নাগরপুর উপজেলার মুক্তিযোদ্ধা চাঁনমিয়ার মেয়ে। নাম ইরানী।

একসময় স্বামীর সঙ্গে ৩৩৫/বি খিলগাঁও তালতলা লোহারগেট এলাকায় থাকতেন। তাদের সংসারে এক ছেলে ছিল। স্বামী ইব্রাহিম খলিল মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলার গুয়াগাচিয়া ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান।

আড়াই বছর আগে স্বামীর সংসার ছেড়ে চলে আসেন ইরানী। এখন থাকেন মোহাম্মদপুরে বোনের বাসায়।

জানা অজানা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.