সাবেক তথ্য ও শিল্পমন্ত্রী এম শামসুল ইসলাম মারা গেছেন

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী এম শামসুল ইসলাম আর নেই (ইন্না-লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বৃহস্পতিবার দুপুর ২টা ৩০মিনিটে রাজধানীর ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৮৬ বছর। তিনি দুই ছেলে, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। অনেক দিন ধরেই দুরারোগ্য ব্যাধি ক্যান্সারে ভুগছিলেন এই রাজনীতিক। মরহুমের প্রথম নামাজে জানাজা বৃহস্পতিবার বাদ মাগরিব গুলশান আজাদ মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার সকাল ৯টায় জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় দ্বিতীয় জানাজা ও সকাল ১০টায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৃতীয় জানাজা শেষে মরদেহ মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ীর সুখবাসপুরে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে বাদ জুম্মা শেষ নামাজে জানাজার পরে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হবে।

শামসুল ইসলামের স্ত্রী আনোয়ারা সুফিয়া ইসলাম ২০১৫ সালের ৩ জুন মারা যান। বড় ছেলে সাইফুল ইসলাম বাবু ঢাকা চেম্বার অব কমার্সের সাবেক সভাপতি।

১৯৯১ সালের মুন্সীগঞ্জ-৩ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন শামসুল ইসলাম। এর পর তিনি সরকারের তথ্য মন্ত্রণালয়সহ একাধিক মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৬ সালের আগ পর্যন্ত তিনি দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি ১/১১ সরকারের সময় দলের পক্ষে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন। তবে সর্বশেষ কাউন্সিলে বাধ্যর্কজনিত কারণে তাকে স্থায়ী কমিটি থেকে বাদ দেয়া হয়।

ইত্তেফাক/ইউবি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.