শ্রীনগরে স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে থানায় কুকুরের বাচ্চা চুরির অভিযোগ !

আরিফ হোসেনঃ শ্রীনগরে ১০ম শ্রেনির এক স্কুল ছাত্রের বিরুদ্ধে থানায় কুকুরের বাচ্চা চুরির অভিযোগ করা হয়েছে। অভিযোগটির তদন্তকারী কর্মকর্তা বাঘড়া পুলিশ ফড়ির ইনচার্জ এসআই পরিমল ওই স্কুল ছাত্রের বাড়ীতে গিয়ে কুকুরের বাচ্চাটি বের করে দিতে বলে। কুকুরের বাচ্চা বের করার জন্য প্রয়োজনে স্কুল ছাত্রকে রিমান্ডে নেওয়ার হুমকি দেয়। পুলিশের হুমকি পেয়ে ওই ছাত্র ভয়ে স্কুলে যাওয়া বন্ধ করে দেয়। কুকুড়ের বাচ্চাটি নিখোঁজের ৯ দিন পর রবিবার সকালে এলাকাবাসী অভিযোগ কারীর বাড়ী থেকে উদ্ধার করে এসআই পরিমলকে খবর দেয়। কিন্তু এসআই পরিমল কুকুরের বাচ্চাটিকে তার হেফাজতে নিতে গড়িমসি করেন। এসআই পরিমলকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি ওই স্কুল ছাত্রকে রিমান্ডে নেওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন।

শ্রীনগর উপজেলার একাধিক ব্যক্তি বলেন, গত ২ মাসে শ্রীনগর থানায় একাধিক ডাকাতি, ছিনতাই ও আতœহত্যার প্ররোচনার আসামী ধরার ক্ষেত্রেও শ্রীনগর থানা পুলিশের এতো জোড়ালো ভূমিকায় দেখা যায়নি। অথচ একটি কুকুড়ের বাচ্চা নিয়ে হুলস্থুল কান্ড সত্যি অবাক করার মতো।

স্থানীয়রা জানায়, শ্রীনগর উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নের কাঠালবাড়ী এলাকার বাসু মীর (৩৫) নামে এক ব্যক্তি কুকুরের বাচ্চা চুরির অভিযোগ করেন। ৩/৪ মাস বয়সী একটি দেশীয় কুকুরের বাচ্চা বাসু মীরের বাড়ী থেকে ১৫ দিন আগে হারিয়ে যায় । অনেক খোজা খুজির পর পাশর্^বর্তী শান্ত বেপারীর বাড়ির পালিত কুকুরের সাথে তার কুকুুরের বাচ্চাটি খেলা করতে দেখে নিজ বাড়িতে নিয়ে অসেন। গত ৮ মার্চ পূণরায় তার কুকুরের বাচ্চাটি হারিয়ে যায়। কুকুরের বাচ্চা চুরির সন্দেহে বাসু মীর পাশ^বর্তী শান্ত বেপারীর ছেলে কামারগাঁও কাজী ফজলুল হক উচ্চ বিদ্যালয়ে ১০ম শ্রেনির ছাত্র মারুফ (১৫) এর বিরুদ্ধে গত শুক্রবার শ্রীনগর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন। স্কুল ছাত্র মারুফের ভাই বাবু জানান, আমাদের বাড়ীতে থাকা ৩টি কুকুরের বাচ্চা গত কয়েক দিন পূর্বে ওই কুকুরের বাচ্চাটিকে কামড়িছে এই অভিযোগ নিয়ে বাসুমীর আমাদের বাড়িতে আসলে ছোট ভাই মারুফের সাথে তার কথা কাটাকাটি হয়। এঘটনার জেরে বাসু মীর আমার ভাই স্কুল ছাত্র মারুফের বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় অভিযোগ করলে বাঘড়া ফাড়ির ইনচার্জ এসআই পরিমল মন্ডল কয়েক দফা আমাদের বাড়িতে আসে। মারুফ স্কুলে থাকার কারনে এসআই পরিমলের সাথে তার দেখা না হওয়ায় শনিবার সকাল ১০ টায় ও দুপুরে এসআই পরিমল আবার মারুফকে খুজতে বাড়িতে আসেন এবং তার পরিবারের লোকজনকে রিমান্ডে নেওয়া সহ নানা ভয়ভীতি দেখায়।

কুকুরের বাচ্চা চুরির বিষয়ে শ্রীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ ইউনুচ আলীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, অভিযোগ পেয়ে বাঘড়া ফাড়ির ইনচার্জ পরিমল মন্ডলকে তদন্ত করতে দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.