শিমুলিয়া ঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া নিলে মালিকদের জেল-জরিমানা

আসন্ন ঈদুল ফিতরে শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রীদের থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হলে মালিকদের জেল-জরিমানার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মুন্সিগঞ্জ জেলা ও পুলিশ প্রশাসন। সোমবার (১৩ মে) দুপুরে মুন্সিগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাটে নিরাপদে পারাপার নিশ্চিত করতে বিশেষ আইন-শৃঙ্খলা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভায় জেলা প্রশাসক সায়লা ফারজানা সভাপতিত্ব করেন।

মুন্সীগঞ্জ জেলা পুলিশ সুপার জায়েদুল আলম জানান, ৪ শতাধিক পুলিশ সদস্য শিমুলিয়া ঘাটে নিয়োজিত থাকবে। ওয়াচ টাওয়ার, কন্ট্রোল রুম, সিসিটিভি ক্যামেরা, প্রাথমিক চিকিৎসা রুম ইত্যাদি স্থাপন করা হবে। যাত্রীদের থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা মালিকদের জেল-জরিমানা করা হবে। যাত্রীরা যাতে নির্বিঘ্নে ঈদে বাড়ি যেতে পারে সেজন্য ঘাট এলাকায় সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।

লৌহজং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কাবিরুল ইসলাম জানান, ঈদের তিন দিন আগে থেকে ট্রাক চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হবে। যাত্রীবাহী গাড়িগুলো পারাপারে অগ্রাধিকার দেওয়া হবে। ঈদ উপলক্ষে শিমুলিয়াঘাট থেকে ঢাকার বাস ভাড়া ১০০ টাকা এবং শিমুলিয়াঘাট থেকে কাঁঠালবাড়ী ঘাট পর্যন্ত স্পিডবোট ভাড়া ১৮০ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। নৌরুটে ৮৭টি লঞ্চ, ১৭টি ফেরি ও দুই ঘাট মিলিয়ে ৫৪০টি স্পিডবোট থাকবে। সন্ধ্যার পর স্পিডবোট ছাড়া হবে না। লাইফ জ্যাকেট ও ধারণ ক্ষমতা অনুযায়ী যাত্রী নিয়ে স্পিডবোট ছাড়বে। ৪ জন ম্যাজিস্ট্রেট থাকবে ঘাট এলাকায়। আসন্ন ঈদে শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রীদের দুর্ভোগের কোনো আশঙ্কা নেই বলেও জানান তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আসমা শাহীন, লৌহজং ও শ্রীনগর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ মো. আসাদুজ্জামানসহ সংশ্লিষ্টরা।

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.