শিমুলিয়া ঘাটে তিন হোটেলকে জরিমানা

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাটে তিন হোটেলকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। ধার্যকৃত মূল্যের চেয়ে পণ্যের মূল্য বেশি রাখায় এবং অবৈধ প্রক্রিয়ায় পণ্য উৎপাদন করার অভিযোগে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। বুধবার দুপুরে অধিদপ্তরের বাজার তদারকির অংশ হিসেবে ঘাটের নিরালা হোটেলকে ১০ হাজার টাকা, রাকিব হোটেল ও নিউ মোল্লা হোটেলকে ৫হাজার করে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯-এর ৪০ ও ৪৩ ধারায় উক্ত জরিমানা করা হয়। এরমধ্যে একজন ভোক্তার লিখিত অভিযোগ তদন্ত করে সত্যতা পান নিরালা হোটেলের বিরুদ্ধে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে হোটেলটিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং ভবিষ্যতে এরকম না করার জন্য সতর্ক করা হয়। পরে স্পিডবোট ঘাট পরিদর্শন করেন বাজার তদারক দলটি। যাত্রীদের কাছ থেকে স্পিডবোটে নির্ধারিত ১৫০ টাকার বেশি ভাড়া নেওয়া হয় কিনা এবং আরোহীরা লাইফ জ্যাকেট পরিধান করে কিনা সরেজমিনে পরীক্ষা করা হয়।

এসময় স্পিডবোট ইজারাদার কর্তৃপক্ষকে নির্ধারিত ভাড়ার চেয়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় না করার জন্য সতর্ক করা হয়। এ বাজার তদারকি অভিযান পরিচালনা করেন জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আসিফ আল আজাদ। অভিযানে আরও অংশ নেন লৌহজং উপজেলা স্যানেটারি ইন্সপেক্টর নাজমুল হোসেন ও লৌহজং উপজেলা ক্যাবের সভাপতি মিজানুর রহমান ঝিলু প্রমুখ।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.