মুল সাইটে যাওয়ার জন্য ক্লিক করুন

পাঠক সংখ্যা

  • 11,189 জন

বিভাগ অনুযায়ী…

পুরনো খবর…

পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান বসছে এ মাসেই

মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল ॥ পদ্মা সেতুর ২২তম স্প্যান (ট্রাস) বসতে যাচ্ছে মাওয়া প্রান্তে। ৫ ও ৬ নম্বর খুঁটিতে এই ‘১ই’ নম্বর স্প্যান বসানোর কথা রয়েছে আগামী ২৪ থেকে ২৬ জানুয়ারি। এরই মধ্য দিয়ে সেতুর ৩৩০০ মিটার ট্রাস স্থাপন সম্পন্ন হচ্ছে। এর আগে ২০ জানুয়ারি এই স্প্যান বসানোর কথা ছিল। এদিকে বুধবার পদ্মা সেতুর আরও দুটি স্প্যান চীন থেকে মাওয়ায় এসে পৌঁছেছে। এই নিয়ে মাওয়ায় আসা স্প্যানের সংখ্যা দাঁড়াল ৩৬। আরও তিনটি স্প্যান মাওয়ার উদ্দেশে সমুদ্র পথে রয়েছে। চীনে রয়েছে মাত্র দুটি স্প্যান। এই দুটি স্প্যানও তৈরি শেষ। এখন চলছে পেইন্টিংয়ের কাজ। শীঘ্রই এই দুই স্প্যানও মাওয়া রওনা হবে।

এর পর ২৩তম স্প্যান ‘৬এ’ বসছে জাজিরা প্রান্তের ৩১ ও ৩২ নম্বর খুঁটিতে। ৩০ জানুয়ারির এটি বসানোর কর্মসূচী থাকলেও ২/৪ দিন বিলম্বও হতে পারে।

পদ্মা সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী (মূল সেতু) দেওয়ান আব্দুল কাদের জানিয়েছেন, গত ১৪ জানুয়ারি মূল সেতুর ২১তম স্প্যান জাজিরা প্রান্তের ৩২ এবং ৩৩ নম্বর পিয়ারের (খুঁটি) ওপর স্থাপন হওয়ায় সেতুর ৩১৫০ মিটার ট্রাস স্থাপিত হলো এতে মূল সেতুর ৬১৫০ মিটারের অর্ধেকের বেশি ট্রাস বসানো শেষ হলো। তিনি বলেন, সেতুর মোট ৪২ পিয়ারের মধ্যে ৩৬ পিয়ারের কাজ শেষ হয়েছে এবং অবশিষ্ট ছয়টি পিয়ারগুলোর কাজ চলমান রয়েছে। এই ছয় পিয়ারের কাজ আগামী এপ্রিলের মধ্যে শেষ হবে বলে আশা করা যায়। আগামী জুলাইয়ের মধ্যে সব (৪১টি) স্প্যান বসানোর টার্গেট রয়েছে।

পদ্মা মূল সেতু ৬.১৫ কিলোমিটার হলেও দুই প্রান্তে সংযোগ (ভায়াডাক্ট) সেতু রয়েছে আরও প্রায় তিন কিলোমিটার। এই সংযোগ সেতুর মাওয়া প্রান্তে রয়েছে ৪৪ খুঁটি এবং জাজিরা প্রান্তে ৪৬ খুঁটি। দু’পারের ৯০ খুঁটিই সম্পন্ন হয়ে গেছে। ১০৯টি সুপার টি উঠে গেছে। দুইপার মিলে আরও ৩শ’ সুপার টি বাকি রয়েছে। এখন হরদম চলছে এগুলোও বাসনোর কাজ।

স্থায়ীভাবে সেতুতে ২১ স্প্যান বসেছে। তবে অস্থায়ীভাবে আরও একটি অর্থাৎ সেতুতে এখন ২২ স্প্যান দৃশ্যমান। ‘৫এফ’ নম্বরের স্প্যানটি এখন অস্থায়ীভাবে সেতুর ১২ ও ১৩ নম্বর খুঁটিতে রাখা আছে। এটি সরিয়ে নেয়া হবে ৩০ ও ৩১ নম্বর খুঁটিতে। রেলওয়ে এবং রোডওয়ে স্লাব বসানোর সুবিধার্থে এটি সেখানে যথাস্থানে বসানো হয়নি। তবে শীঘ্রই এটিও ৩০ ও ৩১ নম্বর খুঁটিতে বসানো হবে।

মাঘের হাড় কাঁপানো শীত ও কুয়াশাচ্ছন্ন পদ্মায় দিন-রাত চলছে সেতু তৈরির কাজ। ৬ দশমিক ১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এ বহুমুখী সেতুর মূল আকৃতি হবে দোতলা। কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মিত হচ্ছে এ সেতুর কাঠামো। বসানো স্প্যানের নিচের তলায় রেলওয়ে স্লাব এবং ওপরের তলায় রোডওয়ে স্লাব বসানোর কাজও দ্রুত এগিয়ে চলেছে। ২৯১৭ রোডওয়ে স্লাবের মধ্যে এ পর্যন্ত ২১শ’র বেশি তৈরি করা হয়েছে। আর ২৯৫৯ রেলওয়ে স্লাবের মধ্যে সব তৈরি হয়ে গেছে। এর মধ্যে ২০২ রোডওয়ে স্লাব এবং ৫১৯ রেলওয়ে স্লাব বসানো হয়েছে।

গত ১৪ জানুয়ারি সেতুর অগ্রগতি সভা সম্পন্ন হয়েছে। এই সভা থেকেও সংশ্লিষ্টদের উপস্থিতিতে সেতুর কাজের নানা বিষয় এবং মান সঠিক রেখে কাজ যথা সময়ে সম্পন্ন করার তাগিদ দেয়া হয়েছে।

মূল সেতুর মোট ৪২ পিয়ারের (খুঁটি) মধ্যে ৩৬ পিয়ারের কাজ শতভাগ শেষ হয়েছে। বাকি রয়েছে মাত্র ছয়টি পিয়ার। ৮, ১০, ১১, ২৬, ২৭ এবং ২৯ নম্বর পিয়ার এখন পদ্মার তলদেশ থেকে ওপরের দিকে উঠছে বা উঠে গেছে। ৮, ১০ , ১১ এবং ২৯ চারটি পিয়ারের কাজ ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি শেষ হবে। অবশিষ্ট ২৬ এবং ২৭ নম্বর পিয়ারের কাজ এপ্রিলের মধ্যে শেষ হবে। এদিকে শুষ্ক মৌসুমের কারণে নদী শাসনের কাজেও গতি পেয়েছে।

দ্বিতল সেতুটি কংক্রিট ও স্টিল দিয়ে নির্মাণ করা হচ্ছে। এই সেতুর দু’প্রান্তে আরও প্রায় তিন কিলোমিটার সংযোগ সেতু রয়েছে। তাই সেতুটি দীর্ঘ প্রায় ৯ কিলোমিটার। সেই সংযোগ সেতুর কাজের অগ্রগতিও সন্তোষজনক। চীনের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান চায়না রেলওয়ে মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং গ্রুপ কোম্পানি লিমিটেড মূল সেতু নির্মাণের কাজ করছে।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

  

  

  

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.