করোনা দুর্যোগে ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন ডা: তানিয়া

মুন্সীগঞ্জে করোনা দুর্যোগে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অন্যের মুখে হাসি ফুটিয়ে যাচ্ছেন গাইনি ডা: আমেনা খাতুন তানিয়া। করোনার প্রথম থেকেই তিনি টঙ্গীবাড়ি ইউনাইটেড ক্লিনিকে. প্রসূতি রোগীদের সিজার করে যাচ্ছেন প্রতিনিয়ত। যখন অসহায় মানুষ কোথাও সিজার করার চিকিৎসক পাচ্ছিলেন না তখনও তিনি কাজ করেছেন। রাত ১ টায় রোগীর ফোন। প্রচন্ড ব্যথা খবর পেয়ে মুন্সীগঞ্জ শহরের বাসা হতে তিনি ছুটে গিয়েছেন টঙ্গীবাড়িতে। প্রসূতি টুম্পা বলেন, রোজার মধ্যে আমার সিজারের সময় ছিল। খুব চিন্তা কাজ করেছিল।কোথায় যাবো। কি করবো।পরে ডা: আমেনা খাতুন তানিয়ার মাধ্যমে সুচিকিৎসা পেয়েছি। আসলে এই সময়টায় তিনি সম্মুখ যোদ্ধা হয়ে ঝুঁকি নিয়ে সেবা দিচ্ছেন তা খুবই প্রশংসনীয়।

ডা: আমেনা খাতুন তানিয়া সভ্যতার আলোকে বলেন, করোনা দুর্যোগে মানুষ খুব অসহায় হয়ে জীবন যাপন করছেন। রাত বিরাতে ছুটে এসে চিকিৎসা সেবা দেওয়ার চেষ্টা করেছি। প্রসূতি মায়েদের সিজার করার পর নবজতাককে পেয়ে পরিবারগুলোর মাঝে যে আনন্দের হাসি দেখেছি তা আমাকে প্রেরণা দিয়েছে। একটা সময় পৃথিবী আবার আগের মত হবে ইনশাল্লাহ।কিন্তু করোনা দুর্যোগের কথা মানুষের কাছে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। করোনায় মানবতায় যারা কাজ করছেন অন্যের তৃপ্তিমময় হাসিতেই তো তাদের স্বার্থকতা।

সভ্যতার আলো

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.