এ রাস্তা পাকা হবে কবে?

ইমতিয়াজ বাবুল: মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখান উপজেলার ঢাকা-মাওয়া মহাসড়ক থেকে কেয়াইন ইউনিয়ন পরিষদ পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তাটি যানবাহন এবং মানুষ চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন সংস্কার না করার কারণে রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। গর্তগুলোতে পানি জমে থাকে। অনেক স্থানে কার্পেটিং উঠে গেছে। রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করতে গিয়ে প্রায়ই দুর্ঘটনার শিকার হতে হচ্ছে পথচারী, স্টু্কল, কলেজ, মাদ্রাসাগামী ছাত্রছাত্রীদের। পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সড়কের বিভিন্ন স্থানে জলাবদ্ধতার কারণেও সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্ত।

উপজেলার এই সড়কটি দিয়ে কেয়াইন, রাজানগর, চিত্রকোর্ট ও শেখরনগর ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ প্রতিদিন যাতায়াত করেন। এক কিলোমিটার সড়কের সঙ্গে রয়েছে ব্যস্ততম নিমতলা বাজার, ছয়টি ব্যাংক, তিনটি প্রাইভেট ক্লিনিক, সরকারি ও বেসরকারি অফিস, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ উপজেলা সদর এবং ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কের সংসযোগ সড়ক এটি। ব্যস্ততম সড়কটিতে এখন প্রতিনিয়ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে যানবাহন। ফলে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে মানুষকে। স্থানীয়রা জানান, সড়কটির কাজ হয়েছে খুব নিম্নমানের। যে কারণে অনেক গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই জনজীবনে চরম দুর্ভোগ নেমে আসে। তা ছাড়া পরিকল্পনা মতো ড্রেনেজ ব্যবস্থা না রাখায় সামান্য বৃষ্টি হলেই এটি এখন পানির নিচে চলে যাচ্ছে। অটোরিকশাচালক শহিদুল ইসলাম জানান, রাস্তায় গর্তের কারণে ঠিকমতো গাড়ি চালাতে পারেন না।

কেয়াইন ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফ আলী শেখ বলেন, রাস্তাটি সংস্কার করা অতি জরুরি হয়ে পড়েছে। এ বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে আমি ব্যক্তিগতভাবে আলাপ করেছি। তারা আশ্বাস দিয়েছে এ অর্থবছরে রাস্তার সংস্কার করে দেবে। সিরাজদীখান উপজেলা প্রকৌশলী সোয়াইব বিন আজাদ বলেন, অতিগুরুত্বপূর্ণ সড়ক শিগগির সংস্কারের জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সমকাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.