শ্রীনগরে সংখ্যালঘুদের সম্পত্তি দখলদারের হামলায় বৃদ্ধ আহত

শ্রীনগরে সম্পত্তি দখলের পায়তারায় এক আদম বেপারীর বিরুদ্ধে সংখ্যালঘুদের ওপর হামার অভিযোগ উঠেছে। এতে এক বৃদ্ধ গুরুতর আহত হয়েছেন। উপজেলার বীরতারা এলাকার সাতগাঁওয়ে এই ঘটনা ঘটে। এঘটনায় হামলাকারীর বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় ২টি অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

বীরতারা ইউনিয়নের পার্শ্ববর্তী হাঁসাড়া ইউনিয়নের নয়বাড়ির শুকুর মোল্লার ছেলে এক সময় এলাকার চিহ্নিত আদম বেপারী মুরছালিন মোল্লা। তার বিরুদ্ধেই সাতগাঁও গ্রামে হিন্দু পরিবারের সম্পত্তি দখলের চেষ্টায় ওই এলাকার মৃত জুলহাস খানের ছেলে আব্দুল জব্বার খানকে মেরে আহত করা অভিযোগ উঠেছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সাতগাঁও গ্রামের মৃত বানু মন্ডলের দুই পুত্র নিতাই মন্ডল ও গৌরঙ্গ মন্ডল। এর মধ্যে গৌরঙ্গ কয়েক বছর আগে মারা যায়। গৌরঙ্গ মন্ডল ও মায়া মন্ডলের সংসারে কোনো সন্তান ছিল না। প্রায় দুই বছর আগে মায়া মন্ডলের অন্যত্র বিয়ে হয়। মায়া মন্ডল এখন পার্শ্ববর্তী সিরাজদিখান উপজেলার রাম কৃষ্ণদী এলাকায় বসবাস করে। অথচ মুরছালিন মোল্লা সাতগাঁও গ্রামের কালী পদর ছেলে গোবিন্দর সহযোগিতায় মায়া মন্ডলের সাথে যোগাযোগ করে স্বামীর ওয়ারিস সম্পত্তি পাইয়ে দেয়ার কথা বলে পাওয়ার নামা দলিল করে ওই সম্পত্তি দখলের চেষ্টা করছে।

 হামলাকারী- ছবি: নিউজজি

অপরদিকে মায়া মন্ডলের দেবর নিতাই মন্ডল ও তার স্ত্রী রানী মন্ডল বিষয়টি টের পেয়ে সাতগাঁও পাশের বাড়ি আব্দুল জব্বার খানকে বিষয়টি জানায়। এতে করে ক্ষীপ্ত হয়ে মুরছালিন মোল্লা গত রোববার সন্ধ্যার দিকে সাতগাঁও স্ট্যান্ডে বৃদ্ধ জব্বার খানের ওপর হামলা চালায়।

অপর একটি সূত্র জানায়, এ ঘটনায় মুরছালিন মোল্লার পক্ষ হয়ে আপোষ মিমাংসার জন্য এলাকায় একটি সিন্ডিকেট কাজ করছে।

আহত বৃদ্ধ আব্দুল জব্বার খান বলেন, পাশের বাড়ির নিতাই মন্ডল ও তার স্ত্রী তাদের সম্পত্তি সংক্রান্ত বিষয়ে জানানোর জন্য আমার কাছে আসে। আমি তাদেরকে বলেছি এব্যাপারে আমি কিছু বলতে পারবোনা। তার আত্মীয়-স্বজন আছে তাদের কাছে যেতে। এই সূত্রে প্রভাবশালী মুরছালিন মোল্লা আমাকে মেলে রক্তাত্ব করে। এসময় তার সহযোগি গোবিন্দ উপস্থিত ছিল। এঘটনায় শ্রীনগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি।

ভোক্তভুগী নিতাই মন্ডল ও তার স্ত্রী রানী মন্ডল বলেন, মুরছালিন মোল্লা আমাদের সম্পত্তি দখলের পায়তারা করছে। তারা জানান, কয়েক বছর আগে গৌরঙ্গ মন্ডল মারা গেলে তার স্ত্রী মায়া মন্ডলকে সামাজিকভাবে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা বললে ৫ লাখ ৩০ হাজার টাকা আমরা দিয়ে দেই। তার কিছুদিন পরে মায়া মন্ডলের অন্যত্র বিয়ে হয়ে যায়। একটি মহলের কারসাজিতে মায়া মন্ডলের সহযোগিতায় আদম বেপারী মুরছালিন মোল্লা আমাদের সম্পতি দখলের চেষ্টা করে ও হুমকি প্রদান করে আসছে। এঘটনায় থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

সহযোগি গোবিন্দ মন্ডলের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জব্বার খানের সাথে মুরছালিন মোল্লার হাতাহাতি হয়েছে ঘটনা উপস্থিত সবাই দেখছে।

মায়া মন্ডলকে স্বামীর বাড়ির সম্পত্তি পাইয়ে দেয়া/বিক্রি করে দেয়ার বিষয়ে সযোগিতা করা হচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মায়া মন্ডলের তার সাথে যোগাযোগ করছে। এবিষয়ে জানতে মায়া মন্ডলের মুঠো ফোনে যোগাযোগ করা হলে সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে ফোনটি কেটে দেন।

অভিযুক্ত মো. মুরছালিন মোল্লার কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, জব্বার খানের সাথে হাতাহাতি হয়েছে। সে ক্ষেত্রে তার মাথা ফাটতে পারে।

হিন্দুর সম্পত্তি দখলের পায়তারা করার অভিযোগ উঠার বিষয়ে তিনি বলেন, আমি মায়া মন্ডলের কাছ থেকে বাড়ি ও পালানের সাড়ে ১৭ শতাংশ জায়গা ক্রয় করেছি। আমি এখনো ওই জায়গা দখলে যাইনি।

এলাকায় আপনি আদম বেপারী মুরছালিন হিসেবে পরিচিত কেন এর জবাবে তিনি বলেন, আগে আদম ব্যবসা করাতাম এখন এটা করিনা।

তার বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, স্থানীয় এক যুবলীগ নেতা দায়িত্ব নিয়েছেন বিষয়টি মিমাংসা করে দিবেন। আপনারা আসছেন কেন?

এব্যাপারে তদন্তকারী কর্মকর্তা ও শ্রীনগর থানার এসআই আপন জানান, দুইটি অভিযোগ হাতে পেয়েছি। আগামীকাল তদন্ত করতে ঘটনাস্থলে যাব।

নিউজজি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.