মুন্সীগঞ্জে করোনা টিকা প্রদানের প্রশিক্ষন চলছে জেনারেল হাসপাতালে

মুন্সীগঞ্জে টিকা প্রদানের জন্য মঙ্গলবার থেকে প্রশিক্ষণ শুরু হয়েছে। প্রথম দিন উপজেলা পর্যায়ে ৩৪ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার মুন্সীগঞ্জ সদরে টিকাদান কর্মী ও ভলান্টিয়ার্সসহ ৬০ জনকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের অডিটিউরামে। জেলা সদরে করোনারি প্রভাব বেশী থাকায় ডাক্তার, নার্স ও ভলান্টিয়ার্সসহ ১০টি টিম থাকবে। প্রত্যেক টিমে দুইজন স্বাস্থ্যকর্মী ও ৪ জন ভলান্টিয়ার্স থাকবে। উপজেলা গুলোতে একইভাবে তিনটি করে টিম থাকবে। ১৫০ জনের উপরে স্বাস্থ্যকর্মী ও সেচ্ছাসেবিদের প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। জেলাতে সবকিছু ঠিক থাকলে গুরুত্ব বিবেচনা করে সম্মুখসারীর যুদ্ধাদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আগামী ৭ ফেব্রুয়ারী থেকে করোনা টিকা প্রদান শুরু হবে। প্রশিক্ষণ প্রদান করছেন সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডাঃ দেবরাজ মালাকার ও জুনিয়র কনসালটেন্ট ডাঃ আতিকুর রহমান।

সিভিল সার্জন ডাঃ আবুল কালাম আজাদ জানান,মুন্সীগঞ্জে ৪৮০০ ভায়াল (কাঁচের শিশি) করোনা প্রতিরোধ ভ্যাকসিন বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। প্রতি ভায়ালে ১ ডোজ করে ১০ জন ব্যক্তিকে টিকা দেওয়া যাবে। এরুপ ভাবে ৪৮ হাজার মানুষকে প্রথম ডোজ হিসেবে টিকা দেওয়া কথা ছিলো। তবে গতপরশু মন্ত্রনালয় থেকে নির্দেশনা আশে। ৪৮ হাজারের পরিবর্তে ২৪ হাজার মানুষকে দুই ডোজ দিয়ে সম্পূর্ণ টিকার কোর্স শেষ করা হোক। দেশের সর্বত্রই এরুপ ভাবে প্রথম টিকা দেওয়ার ৪ সপ্তাহ পর দ্বীতিয় টিকা দিয়ে দেওয়া হবে। পাশাপাশি অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন করার করা বাধ্যতামূলক জানান সিভিল সার্জন।

বিডি২৪লাইভ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.