ধ্বংসের মুখে দাতব্য চিকিৎসাকেন্দ্র

ইমতিয়াজ বাবুল: নোংরা, দুর্গন্ধযুক্ত, অপরিস্কার ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে চলছে রোগীদের চিকিৎসাসেবা। টয়লেট থেকেও আসছে দুর্গন্ধ। ফলে এ হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আশা রোগীর স্বজনরাও বাড়ি ফিরছেন রোগী হয়ে। একজন মেডিকেল অফিসার, একজন উপসহকারী কমিনিউটি মেডিকেল অফিসার ও একজন ফার্মাসিস্ট দিয়ে হাসপাতালটি পরিচালিত হলেও নানা সমস্যায় জর্জরিত দাতব্য চিকিৎসালয়টি। সরেজমিন হাসপাতাল ঘুরে এমন চিত্র ফুটে উঠেছে। তার পরও প্রতিদিন প্রায় দুই শতাধিক রোগী সেবা নিতে আসেন এই হাসপাতালে।

ব্রিটিশ আমলে স্থাপিত সিরাজদীখানের পূর্ণ চন্দ্র দাতব্য চিকিৎসালয়। ১৯১৫ সালে বাংলার গভর্নর লর্ড কারমাইকেল সিরাজদীখানের শেখরনগরে উদ্বোধন করেন পূর্ণ চন্দ্র দাতব্য চিকিৎসাকেন্দ্র। ৩৬ শতাংশ জায়গায় ১০৫ বছর আগে তৈরি টিনশেড তিনটি কক্ষে চলছে চিকিৎসাসেবা। তবে কক্ষ তিনটি দেখলেই বোঝা যায়, পুরোনো ব্রিটিশ আমলের তৈরি। তেমন কোনো মেরামত করা হয়নি। এর মধ্যে চিকিৎসাসেবা চললেও নানা সমস্যায় পড়ে আছে হাসপাতালের তিনটি কক্ষ। এ অবস্থায় অযত্নে-অবহেলা ও সংস্কারের অভাবে ধ্বংসের মুখে পতিত হওয়া এখন সময়ের অপেক্ষা মাত্র।

জনাকীর্ণ ছোট্ট একটি টিনশেড কক্ষে চলে চিকিৎসাসেবা। তবে এর সংস্কার না হলে এলাকার ভূমিদস্যুদের দ্বারা বেদখল হয়ে যেতে পারে হাসপাতালের জায়গা। এখন ইতিহাস-ঐতিহ্যের স্বাক্ষর বহন করছে হাসপাতালটি। বিভিন্ন সময় এ অঞ্চলে বিভিন্ন রাজবংশ রাজত্ব করেছে। তবে মুন্সীগঞ্জের অনেক ইতিহাস এখনও অবহেলিত। এমনই অবহেলার মধ্যে ইতিহাসের পাতায় নাম উঠছে পূর্ণ চন্দ্র দাতব্য চিকিৎসালয়।

রায় বাহাদুর শ্রীনাথ ছিলেন নামকরা জমিদার। নিজেদের ৩৬ শতাংশ জায়গা দিয়ে তৈরি করেন হাসপাতাল। তার বাবা পূর্ণচন্দ্রের নামে হাসপাতালটি নামকরণ করা হয় পূর্ণ চন্দ্র দাতব্য চিকিৎসালয়। ১০০ বছর আগে নির্মিত এ হাসপাতালটি ইট-সুরকি ও চুন দিয়ে নির্মিত হয়।

শেখরনগর ইউপি চেয়ারম্যান মো. নজরুল ইসলাম জানান, হাসপাতালটির চিকিৎসার মান খুবই ভালো। তবে হাসপাতালটির নতুন ভবন তৈরি করা খুবই প্রয়োজন। কারণ ঝুঁকির মধ্যে রোগীরা চিকিৎসা নিচ্ছেন। ইউপি পরিষদ থেকে কয়েকবার মেরামত করেছি। উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আঞ্জুমান আরা জানান, হাসপাতালটির চিকিৎসার মান ভালো। তবে শেখরনগর পরিষদ থেকে মেরামত করেছে; কিন্তু নতুন ভবন খুবই প্রয়োজন।

সমকাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.