সিরাজদিখানে পূর্ব শত্রুতার জেরে আওয়ামীলীগ নেতাকে পিটিয়ে জখম

মুন্সীগঞ্জ সিরাজদিখান উপজেলায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে লতব্দী ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি মোঃ ইরন মোল্লা (৫৫)কে পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। গতবুধবার (১০ ফেব্রুয়ারী) সন্ধ্যার পর উপজেলার লতব্দী ইউনিয়নের লতব্দী গ্রামের সাবেক চেয়ারম্যান হাফেজ ফজলুর প্রজেক্টের পশ্চিম পাশে এ ঘটনা ঘটে। মোঃ ইরন মোল্লা চরনিমতলা গ্রামের মৃত সৈয়দ আলী মোল্লার ছেলে। ওই ব্যক্তি বর্তমানে সিরাজদিখান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ইছাপুরা হাসপাতলে চিকিৎসাধীন রয়েছে। বুধবার রাত ১১টায় ভুক্তভোগীর স্ত্রী মোসাঃ কহিনূর বেগম এ ঘটনায় সিরাজদিথান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগে লতব্দী ইউনিয়নের মোঃ মোকারম ওয়াজকরুনি,(৫০),মোঃ সালাউদ্দিন (৪৫),মোঃ সোহেল (২৫),মোঃ বিল্লাল(৪০),মোঃ ওবাইদুল,মোঃ দিপু(২৫),মোঃ মনা মিয়া(৩০),মোঃ আলাউদ্দিনসহ ৮ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। মোঃ ইরন মোল্লার স্ত্রী মোসাঃ কহিনূর বেগম জানান, জমিতে ওষধ দেওয়ার পরে দিন আলু ক্ষেত দেখতে গেলে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে চর নিমতলা গ্রামের মৃত লাল চানের ছেলে মোঃ মোকারম ওয়াজকরুনি,(৫০),মৃত লতিফের ছেলে মোঃ সালাউদ্দিন (৪৫) মোঃ ইসলামের ছেলে মোঃ সোহেল (২৫)সহ ৫-৬ জন মিলে গ্রামের তালতলা মাঠে মারধর করে। এ সময় ইরনের মাথায় বাঁশ,চাবুক দিয়ে আঘাত করে সোহেল। এতে ডান হাত দুই পা ফেটে রক্ত ঝরতে থাকে আমার স্বামী ইরনের। তার স্বামীর দুই পা পঙ্গু হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। পরে তাকে উদ্ধার করে সিরাজদিকান স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তিনি আরও জানান, গ্রামের আসলামের সাথে বিদেশে যাওয়ার বিষয়ে লেনদেনর ব্যাপারে চেয়ারম্যানকে নিয়ে মিমাংশা করা হলে ওই মিমাংশায় কথা বলা নিয়ে উচ্চবাচ্য করা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কয়েকদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এর জেরে তার স্বামী ইরনকে এভাবে মারধর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে লতব্দী ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাফেজ ফজলু বলেন, শত্রুতার জের ধরে লতব্দী ইউনিয়ন ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগ সহ-সভাপতি মোঃ ইরন মোল্লা (৫৫)কে বুধবার সন্ধ্যার দিকে মারধরের ঘটনা ঘটে বলে শুনেছি। এ ব্যাপারে পরে আমাকে কেউ আর কিছু জানায়নি।

সিরাজদিখান থানার অফিসার্স ইনচার্জ (ওসি)এস এম জালালউদ্দিন জানান, ভুক্তভোগীর স্ত্রী থানায় অভিযোগ করেছেন। এ বিষয়ে তদন্ত করে প্রয়াজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

গ্রামনগর বার্তা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.