জাপান প্রবাসীদের বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবার্ষিকী পালন

রাহমান মনি: স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবার্ষিকী পালন করেছে জাপান প্রবাসী বাংলাদেশ কমিউনিটি।

অগ্নিঝরা মার্চ খ্যাত ৭ মার্চ (বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণ), ১৭ মার্চ (বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন) এবং ২৬ মার্চ (মহান স্বাধীনতা দিবস) পালন উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ জাপান শাখা এক সমাবেশ এর আয়োজন করে।

২১মার্চ রাজধানীর অদূরে সাইতামা জেলার মিসাতো সিটির মিসাতো পার্ক—এ আয়োজিত সমাবেশে দলীয় নেতাকর্মীরা ছাড়াও স্থানীয় সংবাদকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। করোনাকালীন এসময় বৈরী আবহাওয়া উপেক্ষা করে জাপানের স্বাস্থ্যবিধি মেনে নেতাকর্মীরা সমাবেশ স্থলে উপস্থিত হন। তবে সমাবেশ স্থলে স্বাস্থ্যবিধি অনেকটাই উপেক্ষিত ছিল।

তবে, ঝড়ো আবহাওয়ার কারনে সমাবেশের পূর্ব নির্ধারিত কর্মসূচির অনেকটাই কাঁটসাট দিতে হয়।

যেহেতু শততম জন্মবার্ষিকী পালন তাই, কেবলমাত্র কেক কেটে শততম জন্মবার্ষিকী পালন আয়োজনের শুভ সূচনা করা হয়।

মধ্যাহ্ন ভোজ শেষে এক সংক্ষিপ্ত আলোচনায় জাপান আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক খন্দকার আসলাম হিরা দিনব্যাপী বৈরী আবহাওয়া সত্বেও কেবল মাত্র বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালবাসার কারনে সবার আগমন আমাদের উৎসাহ যোগায়, এরাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক।তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু এবং বাংলাদেশ এ ও অভিন্ন। তাই, বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত সৈনিকেরা আবহাওয়ার সুতোয় ঘরে বসে থাকতে পারে না। আজকে এটাই তার প্রমান।

সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে জাপান আওয়ামীলীগের সভাপতি সালেহ মোঃ আরিফ নেতাকর্মীদের কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্রের স্বপ্নদ্রষ্টা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ রাত আটটায় গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় শেখ পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা শেখ লুৎফর রহমান ও মা শেখ সায়েরা খাতুন। লুৎফর-সায়েরা দম্পতির এ সন্তানই পরে এ দেশের মানুষের মুক্তির ত্রাতা হিসেবে আবির্ভূত হন। শতবর্ষ পূর্বে পরাধীনতার নিকষ অন্ধকারে নিমজ্জিত বাঙালি জাতির ভাগ্যাকাশে মুক্তির প্রভাকর রূপে জন্ম নেওয়া ‘খোকা’ নামের সেই শিশুটি শিক্ষা-দীক্ষা মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি, মহত্তম জীবনবোধ সততা, সাহস, দক্ষতা ও দূরদর্শী নেতৃত্বে হয়ে ওঠেন বাংলাদেশ নামক স্বাধীন-সার্বভৌম জাতি-রাষ্ট্রের মহান স্থপতি, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি।

একই আয়োজনে বাংলাদেশ ছাত্রলীগও কেক কেটে ইতিহাসের মহানায়কের জন্মশতবার্ষিকী জাপান আওয়ামীলীগের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করে।

rahmanmoni@gmail.com

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.