সিরাজদিখানে হরতালকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে হেফাজতে ইসলামীর নায়েবে আমীর ও ওসিসহ শতাধিক আহত

নাছির উদ্দিন: মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখানে হেফাজতে ইসলামীর হরতালকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর ও ওসিসহ শতাধিক আহত। এ ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আব্দুল হামীদ, সিরাজদিখান থানার ওসি এসএম জালাল উদ্দীন, সেকেন্ড অফিসার সেকান্দর আলীসহ হেফাজতে বিভিন্ন নেতা কর্মী ও মধুপুর মাদরাসার শিক্ষার্থী আহত হয়েছে।

এতে এতে উপজেলার কেয়াইন ইউনিয়নের নিমতলা শিকারপুর সড়ক পর্যন্ত রণক্ষত্রে পরিণত হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ঢাকা-মাওয়া মহাসড়কে অবস্থান হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা তারা প্রায় ২ঘন্টা রাস্তা অবরোধ করে রাখে এবংকেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আব্দুল হামীদ সাহেবের নেত্রীত্বে আরেকটি অংশ শিকারপুর সড়কে অবস্থান নেয় । দুপুর ১২টার মহাসড়ক ছেড়ে শিকারপুর রোডে চলে আশে হেফাজত কর্মীরা তার কিছুক্ষনের মধ্যেই সিরাজদিখান থানার ওসির উপর হামলা করে হেফাজতে ইসলামের কর্মীরা। ওসিকে উদ্ধর করে নিয়ে আশার পরে পুলিশ টিয়ারশেল, রাবার বুলেট ও ফাঁকা গুলি ছোরে ও আওয়ামীলগ নেতা কর্মিরা হড়তাল ছত্রভঙ্গ করে দেয়।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে, সকালে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের কুচিয়ামোড়া ও নিমতলি এলাকায় অবস্থান করে অবরোধের চেষ্টা করছিল হেফাজতের নেতাকর্মীরা। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে হেফাজত নেতাকর্মীদের সরিয়ে দেয়। এরপর নিকটস্থ বড় বড়শিকারপুর ও শুলপুর এলাকায় হেফাজতের নেতাকর্মীরা উত্তেজিত হয়ে পুলিশের ওপর হামলা চালায়। ইটপাটকেল ছুড়ে আহত করে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে এবং কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোড়ে। সংঘর্ষচলাকালীন সময়ে বেশকয়েকটি দোকানপাট ভাংচুর, তিনটি মোটরসাইকেলে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়। এছাড়া একটি অটোরিকশা ভাঙচুর করে নেতাকর্মীরা। পরবর্তীতে হেফাজত কর্মীরা উপজেলার রাজানগর ইউনিয়নের মধুপুর গ্রামে ইউনিয়ন আ’লীগ ও যুবলীগ সভাপতির বাড়িঘর ভাংচুর করে। এবং তাদের বাড়ির মহিলা সদস্যদেরও মারধর করে।

হেফাজতে ইসলামের সিরাজদিখানে উপজেলার সভাপতি মাওলানা ওবাইদুল্লাহ কাসেমী বলেন, পুলিশ শের গুলি ও আওয়ামীলীগের নেতা কর্মিদের হামলায় মাদরাসার শতাধিক ছাত্র আহত হয়েছে। হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর আব্দুল হামীদ পীর সাহেব মধুপুরি গুলি বিদ্ধ হয়েছে।

জেলা পুলিশ সুপার আব্দুল মোমেন জানান, সিরাজদিখান থানার ওসির মাথা ফেটে গেছে। আরো কয়েকজন আহত হয়েছে পুলিশ সদস্য। বিস্তারিত জেনে বলা যাবে বলে জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.