শ্রীনগরে সুদ ব্যবসায়ীর উত্তেজনায় এলাকায় আতঙ্ক

শ্রীনগর উপজেলার রাঢ়িখাল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও সুদ ব্যবসায়ী মো. জিন্নাত বেপারীর কর্মকান্ডে এলাকাবাসী আতঙ্কিত। ইউনিয়নের বালাশুরের নতুন বাজারে আল-আজাদ ইসলামিয়া মাদ্রাসার একটি কাঠের পুল নির্মাণকে কেন্দ্র করে জিন্নাত বেপারী উত্তেজনা শুরু করে। মাওলানা আবুল কালাম বাজারে পণ্য কিনতে আসলে জিন্নাত আলী টেটা নিয়ে তাকে ধাওয়া করে। এ সময় স্থানীয়রা থামাতে আসলে জিন্নাত বেপারী সবাইকে মেরে ফেরার হুমকি প্রদান করে। মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) সকালে নতুন বাজারে এই ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানায়, নতুন বাজার এলাকার আব্দুল রহিম বেপারী ওরফে খিদির বেপারীর ছেলে চেয়ারম্যান প্রার্থী জিন্নাত বেপারী এলাকায় সুদ ব্যবসায়ী হিসেবে পরিচিত। তিনি মাঝে মধ্যেই তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা শুরু করে। কিছুদিন আগে মাদ্রাসায় যাতায়াতের জন্য একটি কাঠের পুল নির্মাণ কাজ শুরু হলে জিন্নাত বেপারীর সাথে মাওলানা আবুল কালামের সাথে বিরোধ হয়। স্থানীয়ভাবে তা আপোষ মিমাংসাও করা হয়। এর পরেও জিন্নাত বেপারী টেটা হাতে সহযোগী আয়ুব বেপারী ও আয়নাল বেপারীর সহযোগিতায় মাওলানাকে ধাওয়া দেয়া হয়। এক সময় মাওলানা আবুল কালাম প্রাণ ভয়ে পালিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী চাঁন মিয়া বলেন, যেভাবে জিন্নাত বেপারী মাওলানাকে মারার চাষ্টা এতে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারতো। নতুন বাজারের দোকানি মিজানুর রহমান, মোতালেব ঢালী, সুমন, শাহিন, শঞীদুল, ফরহাদ, তপন ইসলামসহ অনেকেই ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সুদ ব্যবসায়ী তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাঝে মধ্যেই বাজার এলাকায় উত্তেজনা শুরু করে। এতে করে মানুষ ভয়ে এখানে আসতে চায় না। তার এসব কর্মকান্ডে একাধিক অভিযোগ হয়েছে জানান তারা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজিজুল হক মাস্টার বলেন, আজকের ঘটনায় তাদের থামানো না গেলে এখানে খুনাখুনি হয়ে যেতো।

মাওলানা আবুল কালাম বলেন, পুল নির্মাণকে কেন্দ্র করে স্থানীয়ভাবে আপোষ করা হয়। পুর্ব শক্রুতার জেরে মাঝে মধ্যেই জিন্নাত বেপারী আমাকে গালি গালাজ করে। মঙ্গলবার সকালেও সে আমাকে টেটা নিয়ে ধাওয়া করলে আমি প্রাণের ভয়ে পালাই।

মো. জিন্নাত বেপারীর কাছে এবিষয়ে জানতে যোগাযোগের চেষ্টা করেও তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ও শ্রীনগর থানার এসআই আপন মজুমদার জানান, অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজজি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.