মুন্সীগঞ্জে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়ে আসামি ছিনতাই

মুন্সীগঞ্জ সদরের কালীরচর গ্রামে গেল শনিবার দিনগত রাতে গ্রামবাসীর হামলায় ৫ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় ডাকাতির মামলার এক আসামিকে হাতকরা পরা অবস্থায় পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয় গ্রামবাসী।

পরে রোববার (১৬ মে) সকালে পুলিশ ওই গ্রামে অভিযান চালিয়ে নারীসহ ১৯ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রোববার দুপুরে মুন্সীগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। গুরুতর আহত অবস্থায় সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি, অপারেশন) আবু হানিফকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহত পুলিশ সদস্যদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়।

সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু বকর সিদ্দিক জানান, সদর উপজেলার কালীরচর গ্রামে অভিযান চালিয়ে নৌ-ডাকাতির মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত আসামি মিস্টার মিজিকে গ্রেফতার করে সদর থানা পুলিশ। পরে গ্রেফতার করা আসামিকে ধরে নিয়ে আসতে গেলে গ্রামবাসী পুলিশের ওপর হামলা চালায়। এ সময় গ্রামবাসী আসামি মিজিকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আহতদের উদ্ধার করে। মিজির বিরুদ্ধে চাঁদপুরের মতলব, মুন্সীগঞ্জ সদর এবং নারায়ণগঞ্জের বন্দর ও সোনারগাঁও থানায় হত্যা ও নৌ-ডাকাতিসহ ২৬টি মামলা রয়েছে বলে ওসি জানান।

সদর থানার ওসি আরও জানান, হামলার ঘটনায় সদর থানার এসআই মাজেদ মিয়া বাদী হয়ে ৩২ জনের নাম উল্লেখ ও অজ্ঞাত আরও ৩০-৪০ জনকে আসামি করে একটি মামলা রুজু করেছেন।

এছাড়া পুলিশ কালীরচর গ্রামে অভিযান চালিয়ে নারীসহ ১৯ জনকে গ্রেফতার করেছেন। গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছেন- স্বপন বেপারী (৩৫), ফেরদৌস মোল্লা (৪০), শাহ-আলম প্রধান (৩৫), কুদ্দুস মোল্লা (৪২), বাচ্চু বেপারী (৬৩), শফিকুল প্রধান (৩১), মো. আলী হাওলাদার (৬০), রুহুল আমিন মাঝি (৩৬), লুৎফর হাওলাদার (১৯), রিনা বেগম (৪০), বিউটি বেগম (৪৫), হোসনে আরা (৪২), রুজিনা বেগম (২৫), মাহমুদা বেগম (৪০), রুনা বেগম (৪০), সালমা বেগম (৪৭), আফসুম বেগম (৪৫), আকলিমা বেগম (২৬) ও ডালিয়া বেগম (২৫)। এদের সকলের বাড়ি কালীরচর গ্রামে।

রাইজিং বিডি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.