বাফুফের স্বীকৃতি পেল মুন্সিগঞ্জের ‘গ্রীণ ওয়েলফেয়ার ফুটবল একাডেমি’

বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের (বাফুফে) স্বীকৃতি পেল মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিম এলাকার ‘গ্রীণ ওয়েলফেয়ার সেন্টার ফুটবল একাডেমি’। ফুটবল একাডেমি হিসেবে সারাদেশের আরও ২৪ টি একাডেমির সাথে তারাও এই স্বীকৃতি পেল। গত শুক্রবার (২ জুলাই) ভার্চুয়াল সভার মাধ্যমে এই সম্মাননা দেয় বাফুফে।

ফুটবলপ্রেমী বিভিন্ন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পরিচালিত এই একাডেমিগুলোকে নিজেদের অধীনে আনতে পুরো দেশ থেকে একটি তালিকা সংগ্রহ করেছিল বাফুফে। দেশের প্রত্যেক জেলা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের (ডিএফএ) মাধ্যমে এই তালিকা সংগ্রহ করে তার মধ্য থেকে বাছাইয়ের মাধ্যমে নিবন্ধন দিচ্ছে বাফুফে।

এক প্রতিক্রিয়ায় গ্রীণ ওয়েল ফেয়ার সেন্টারের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান শরিফ বলেন, এই স্বীকৃতি আমাদের জন্য আনন্দের। মুন্সিগঞ্জের ক্রীড়াঙ্গণকে সমৃদ্ধ করতে আমরা আরও বড় পরিসরে কর্মপরিকল্পনা করে এগিয়ে যেতে চাই। আমাদের স্বপ্ন অনেক বড়।

তিনি জানান, মুন্সিগঞ্জের গ্রীণ ওয়েল ফেয়ার সহ নতুন ২৪ একাডেমি যোগ হওয়ায় এখন সারাদেশে বাফুফের নিবন্ধিত একাডেমির সংখ্যা ১০২টি। এর মধ্যে একটি ‘দুই তারকা’ এবং ১০১টি ‘এক তারকা’ গ্রেডের। এর আগে দেশের ফুটবলের অভিভাবক সংস্থাটি প্রথম ধাপে ৭৭টি একাডেমিকে ‘এক তারকা’ ও একটিকে ‘দুই তারকা’ গ্রেড দিয়েছিল।

বাফুফে সাধারণ সম্পাদক আবু নাইম সোহাগ বলেন, গ্রেড অনুসারে একাডেমিগুলোকে কারিগরি সহায়তা দেয়া হচ্ছে। আমরা যদি প্রতিটি বিভাগের জন্য কোচ দিতে পারি, যদি তাদের ফুটবলসহ অন্যান্য প্রয়োজনীয় সরঞ্জামাদি দিয়ে সহায়তা করতে পারি, সেটা অবশ্যই একাডেমিগুলোর কাজে আসবে।’ সোহাগ জানান, এই একাডেমিগুলো নিয়ে বাফুফের পরিকল্পনা দীর্ঘমেয়াদি। দুই/তিন বছর পর নিজেদের নিবন্ধিত একাডেমিগুলো নিয়ে একটি টুর্নামেন্ট আয়োজন করবে বাফুফে।

আমার বিক্রমপুর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.