লকডাউনে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়েতে কড়া নিরাপত্তা

কঠোর লকডাউনে শনিবার ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের শ্রীনগরের ছনবাড়ী, সিরাজদীখানের নিমতলা ও লৌহজংয়ের শিমুলিয়া ফেরিঘাট এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা দেখা গেছে।

শনিবার দিনভর ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের বিভিন্ন পয়েন্টে অবস্থান নিয়ে পুলিশ কড়াকড়ি আরোপ করেছে। শ্রীনগরের সমষপুর ও ছনবাড়ি ফ্লাইওভারের সার্ভিস লেনসহ মূল লেনে পুলিশ তাদের গাড়ি আড়াআড়িভাবে রেখে বন্ধ করে রেখেছে। এছাড়া হাঁসাড়া, ষোলঘর ও বাইপাস মোড়ে পুলিশের কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনী লক্ষ্য করা গেছে। তাই এক্সপ্রেসওয়েতে নিষেধাজ্ঞার আওতার বাইরে কোন গাড়ি চোখে পড়েনি। তবে এক্সপ্রেসওয়ের দুই পাশে অনেককে বিনা বাধায় পায়ে হেঁটে গন্তব্যে চলাচল করতে দেখা গেছে। এক্সপ্রেসওয়ে ছাড়া শাখা রাস্তাগুলোতে অটোরিকশা ও অন্যান্য যানবাহনের সংখ্যাও অনেক কম।

অন্যদিকে লকডাউনের তৃতীয় দিনে মুন্সীগঞ্জ শহর ও উপজেলা শহরগুলোতে জরুরি সেবাদানকারী দোকানপাট ছাড়া সকল দোকানপাট-মার্কেট বন্ধ রয়েছে। অভ্যন্তরীণ রুটে সিএনজি-অটোরিকশা চলাচল করছে না। শনিবার মুন্সীগঞ্জ সদরের সিপাহীপাড়া, মুক্তারপুর ও সুপারমার্কেট এলাকায় সদর থানার পুলিশ সদস্যরা কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন। একই সময়ে জেলা শহরের সেনাবাহিনীর টহল চলছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সড়কে বের হওয়া মানুষজন উপযুক্ত কারণ দেখাতে ব্যর্থ হলে তাদের ফেরত পাঠানো হচ্ছে।

মুন্সীগঞ্জের জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল বলেন, কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে মোতায়েনকৃত ৩ প্লাটুন সেনাবাহিনী, ২ প্লাটুন বিজিবি এবং র‌্যাব সদস্যরা কুইক রেসপন্স টিম হিসেবে কাজ করছে।

মুন্সীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেবনাথ বলেন, লকডাউনের আওতায় সরকারি প্রজ্ঞাপন বাস্তবায়নে ঢাকা-মাওয়া এক্সপ্রেসওয়ের সিরাজদিখানের নিমতলি ও শিমুলিয়া ফেরিঘাটে এলাকাসহ জেলার ১৭টি পয়েন্টে চেকপোস্ট বসানো হয়েছে। সেখানে বিজিবি ও পুলিশ সদস্যরা নজরদারি চালাচ্ছে। এছাড়াও প্রতিটি থানায় গাড়িতে মাইক লাগিয়ে এবং জনপ্রতিনিধিদের সাথে নিয়ে বাজার এলাকায় জনসচেতনতা কাউন্সেলিং করা হচ্ছে।

সমকাল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.