সিরাজদীখানে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধূর আত্মহত্যা

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানে বসত ঘরের আড়ার সাথে গলায় ফাঁস লাগিয়ে এক সন্তানের জননী সাথী আক্তার (৩০) নামে এক গৃহবধূ আত্মহত্যা করেছে। গতকাল সোমবার সকালে উপজেলার কোলা ইউনিয়নের উত্তর রক্ষিত পাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে উপজেলার কোলা ইউনিয়নের উত্তর রক্ষিত পাড়া গ্রামের মো.হারুনের স্ত্রী এবং ঢাকা জেলার লালবাগের কোস্তা চামড়াপট্টির বাসিন্দা মো. জয়নাল বেপারীর মেয়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঝুলন্ত অবস্থা থেকে মৃতদেহ নামিয়ে ময়না তদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তবে আত্মহত্যার প্রকৃত কারণ এখনো জানা জায়নি। স্বামীর সাথে পারিবারিক কলহের কারণে ঘটনাটি ঘটে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

স্থানীয়রা জানায়, প্রায় ১০ বছর আগে সাথী আক্তার ও হারুনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবনে টুকিটাকি মনোমালিন্য থাকলেও হারুনের পরিবারের লোকজনের সাথে সাথী আক্তারের সু-সম্পর্ক ছিলো। স্বামী হারুন মাঝে মধ্যে মাদক সেবন করতো। স্বামীকে মাদক সেবন থেকে সড়িয়ে আনতে না পেরে হয়তো অভিমানের বসবতি হয়ে আতœহত্যার পথে বেছে নিতে পারে এমন ধারনা করা হচ্ছে।

এ ব্যপারে সিরাজদীখান থানার ওসি মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জে পাঠানো হচ্ছে। বর্তমানে একটি অপমৃত্যু মামলা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এটি হত্যা নাকি আত্মহত্যা ময়না তদন্তের পরে জানা যাবে।

ইমতিয়াজ বাবুলের ফেবু থেকে

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.