পদ্মা সেতু থানার প্রথম আসামি মই বেয়ে পলাতক কয়েদি

বহু প্রতীক্ষিত পদ্মা সেতু উদ্বোধনের চার দিন আগে সৃষ্ট হয়েছে দুটি থানা – পদ্মা সেতু উত্তর থানা (মুন্সীগঞ্জের লৌহজং) এবং পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা (শরীয়তপুর)।

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভার্চুয়ালি অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে পদ্মার দুই পাড়ের থানা দুটি উদ্বোধন করেন।

আর উদ্বোধনের পরদিনই প্রথম আসামি পেল পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানা। আসামি মূলত যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত একজন পলাতক কয়েদি। তার নাম – আবু বক্কর সিদ্দিক (৩৭)। সাতক্ষীরার শ্যামনগর থানার চণ্ডিপুর এলাকার মৃত কেছের আলীর ছেলে।

গাজীপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ থেকে মই বেয়ে পালিয়ে যাওয়া সেই কয়েদিকে গত ২২ জুন বেলা সাড়ে ১১টার দিকে নাওডোবা মিনাকান্দি চৌরাস্তা এলাকা থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

ওই এলাকা শরীয়তপুর পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানাধীন। যে কারণে কাশিমপুরে না নিয়ে তাকে পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

আবু বক্করের গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শরীয়তপুর পদ্মা সেতুর দক্ষিণ থানার ওসি শেখ মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

তিনি বলেন, বুধবার বেলা ১২টার দিকে শরীয়তপুরের পদ্মা সেতু দক্ষিণ থানাধীন নাওডোবা এলাকায় ঘোরাফেরা করছিল আবু বক্কর সিদ্দিক। তার চলাফেরা সন্দেহজনক হলে তাকে আটক করে থানায় আনা হয়। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে মুখ ফসকে কাশিমপুর কারাগার থেকে পালিয়ে আসার বিষয়টি জানায়।

থানা সূত্রে জানা গেছে, আবু বক্কর সিদ্দিক হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত হয়ে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২ এ বন্দি ছিলেন। ২০২০ সালের ৬ আগস্ট মই বেয়ে কারাগার থেকে পালিয়ে গিয়েছিলেন।

যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.