ক্লান্তির স্তব্দতা – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

প্রচন্ড কষ্ট বুকের গহিনে, চারিদিকে ক্লান্তির স্তব্দতার সনে।
আমার নি:শ্বাসের শব্দ আমিই পাচ্ছি মনে মনে।
ভোরের আজানের ধ্বনি বেজে ওঠবে ঘন্টা খানেক পর।
আজকি জাগ্রত রজনী কাটবে,যেমনি জাগ্রত দিনভর।
ভাবনাটা অঘটনের তরে ছুটে চলা।
মাকে কথা দিয়ে কি ছুঁড়ে ফেলা। Continue reading »

পনেরোই আগস্ট :: পূরবী বসু

পনেরোই আগস্ট
পাকিস্তানে প্রথম সূর্যোদয়।
পনেরোই আগস্ট
পিতার মৃত্যু; স্তব্ধ হৃদয়। Continue reading »

মুখোশ – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

প্রতিদিন হাফসে ওঠতাম, মুখোশ পরাদের অন্তকর্মে।
আমি ক্লান্ত হতেম কুটিলতার মর্মে মর্মে।
সরল জীবন ছেড়ে, ওরা বারে বারে,
জটিলতায় কদম ফেলে।
মানবহীন চলন বলনে, শুপ্ত আক্রোসে বলে। Continue reading »

বিস্মিত আমি – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

প্রতিকী কফিন আর হাজারো হৃদয়ের চিৎকার।
কেউ কি শোনতে পাও? শোন কি? শোনতে পারো? যার দরকার?
বিলাস বহুল জীবনের লাগি নয়, অট্টালিকা পাবার তরে নয়, শুধু বাঁচবার ইচ্ছে টুকো হয়।
১৭ লাখ প্রাণের মায়ায় নিজেদের যোদ্ধা বানিয়েছে, অদৃশ্য শক্রর সম্মুখে দাঁড়িয়ে, দু: সাহসিক কদম বাড়িয়েছে। Continue reading »

আল্লাহমুখী – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

আল্লাহমুখী হওরে মানুষ, আল্লাহমুখী হও।
জেনে নিও আল্লাহ হতে, তুমি দুরে নও।
মহিমা তাঁর, বলে বার বার, শেষ করা কি যাবে?
এতো উপমা কার আছে জানা, কোন কবি জেনেছে কবে? Continue reading »

সুখী বিশ্বের আশায় – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

বিশ্বে কি তবে নি:স হওয়ার সুর বাজে!
করোনার ভয়ংকর থাবা, সুখের ধরনীর মাঝে।
কান্নার রোল নেই মৃত্যুর মিছিলে।
বেঁচে থাকারা ভেবে নেয় তাদের মৃতদের দলে।
লাখো লাখো মানুষ মৃত্যর মিছিলে। Continue reading »

করুনা করো প্রভু – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

সৌভাগ্যের রাতে, তোমার আরশ হতে,
রহমতের দৃষ্টি পরুক, তোমার সৃষ্টিতে।
পথভ্রষ্ট হলেম, আমরা সবে জালেম।
নির্দেশনা কতো, অমান্যে শত শত। Continue reading »

এক টুকরো রোদ – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

এক টুকরো রোদেলা দিনে,ছিন্নমূলের অবুঝেরা হাত বাড়িয়ে নেয় টেনে।
বুকের মাঝে মেখে দেয়,কাতর সড়ানোর লড়াইয়ে।
কেউ থাকেনা পাশে,ওদের আশে পাশে, দু:খ নিবে সড়ায়ে।
জন্মান্তরে সুখেরা থাকে দুরে,
দু:খ চারিপাশ ঘুরে। Continue reading »

রুমাল – জসীম উদ্দীন দেওয়ান

মাগো তোমার জল মোছাবার রুমালখানা,
হয়নি আনা।
কোন হাট -বাজারে পাবো সেটি?
আজো আমার হয়নি জানা।
মাগো তোমার জল মোছাবার,
রুমালখানা। Continue reading »