নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা: লৌহজংয়ে হিন্দুদের বাড়ি ভাঙচুর

জেলার লৌহজং উপজেলায় নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ভিটেবাড়ি ছাড়ার উপক্রম হয়েছে উপজেলার খিদিরপাড়া ইউনিয়নের পাঁচ শতাধিক হিন্দু পরিবারের। শনিবার ইউনিয়ন পরিষদ(ইউপি) নির্বাচনের আগে ও পরে বিদ্রোহী চেয়ারম্যান ও মেম্বার প্রার্থীর রোষানলে পড়েছেন এখানের শত শত হিন্দু পরিবার।

উপজেলার খিদিরপাড়া ইউনিয়নের হিন্দু অধ্যুষিত একটি গ্রাম পিংরাইল।এ গ্রামে ৫৫৮ জন হিন্দু ভোটার রয়েছেন। ইউপি নির্বাচন হোক আর জাতীয় নির্বাচন হোক সবসময় বলির পাঠা হয় এই হিন্দু পরিবারগুলো।আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থীর কর্মী সমর্থকরা দফায় দফায় হামলা চালিয়ে হিন্দু সম্প্রদায়ের ১৫টি বাড়িঘর ভাঙচুর করে।এ সময় রক্ষা পায়নি ধর্মীয় উপাসনালয়, রাধাগোবিন্দ মন্দির। তাই চরম আতঙ্কিত এই সম্প্রদায়ের অনেকে নিজের ঘরে তালা মেরে আশ্রয় নিয়েছেন আত্মীয় স্বজনদের বাড়ি।

এ সময় ধারালো অস্ত্র দিয়ে অন্তত ১৫ থেকে ২০ জনকে আহত করে।এতে আতঙ্ক ও নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে হিন্দু পরিবারগুলো।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের সদস্য সুভাষ সরকার জানান, নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণার পর আওয়ামী লীগের পরাজিত চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহ নেওয়াজ মৃধা ও ফুটবল মার্কা মেম্বার প্রার্থী মামুন শেখের কর্মী সমর্থকরা একাধিক বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর ও লুটপাট করে তাণ্ডব চালায়।

এ সময় বাড়িঘরে থাকা নারী-পুরুষদের এলোপাতাড়ি মারধর করে এবং দেশ ত্যাগ করার হুমকি দেয়।এ ঘটনায় আহত হয়েছেন, কৃষ্ণ পোদ্দার, সুদেব ঢালী, তাপস পোদ্দার, দীনবন্ধু, রিপন মল্লিক, গনেশ রায়, মহাদেব সরকার, সাধনা রনী, গোবিন্দ রায় ও খগেন মল্লিকসহ অপর আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

লৌহজং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রশীদ শিকদার জানান, ইউনিয়নের আওয়ামী লীগ সভাপতিসহ অন্যান্য নেতা কর্মী যারা দলের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছেন তাদের সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।খুব দ্রুত সভা ডেকে দলীয় সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।হামলার সঙ্গে জড়িত সবার বিরুদ্ধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লৌহজং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) মোল্লা জাকির হোসেন জানান, সকালে জানতে পেরে বিষটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে এবং কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে।এলাকার পরিবেশ এখন শান্ত। অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে।

পূর্ব পশ্চিম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.