“সেরা সাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ”

মুন্সীগঞ্জে “সেরাসাঁতারুর খোঁজে বাংলাদেশ” মঙ্গলবার জাঁকজমক ভাবে আয়োজিত হয়েছে। এতে তৃনমূলপর্যায়ের ১১০ ক্ষুদে সাতারু অংশ নেয়। এদের মধ্যে ৩০ জনই নির্বাচিত হয়েছে।

বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সার্বিক তত্ত্বাবধানে এবং মুন্সীগঞ্জ জেলা ক্রীড়াসংস্থার সহযোগিতায় সুইমিং ফেডারেশন এর আয়োজন করে। দিনভর ক্ষুদে সাঁতারুদের পদচারনায় মুখরিত হয় ব্রজেন দাসের বিক্রমপুর তথা মুন্সীগঞ্জ। শহরের সুইমিংপুলে এই বছাইয়ে আট গ্রুপে ৩২টি ইভেন্টে তারা অংশ নেয়।

আয়োজনটি উদ্বোধন এবং প্রধান অতিথি হিসাবে বিজীদের পুরস্কার বিতরণ করেন সাবেক সাংসদ এবং মুন্সীগঞ্জ জেলা পরিষদ প্রশাসক বিশিষ্ট সাতারু মোহাম্মদ মহিউদ্দিন। এডিএম একেএম শওকত আলম মজুদারের সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ নৌবাহিনী কমান্ডার মাহমুদুর রহমান ও আয়োজক কমিটির আহ্বায়ক জোনায়েদ হোসেন প্রমুখ। মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন রাষ্ট্রীয় পুরস্কার প্রাপ্ত সাঁতারু সাহাবুদ্দিন আহম্মেদ, প্রেসক্লাব সভাপতি মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, সাধারণ সম্পাদক তানভীর হাসান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি মো. মতিউল ইসলাম হিরু, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, মো. ইকবাল হোসেন ও বাহারুল আলম, জেলা ক্রীড়া অফিসার ওয়াহিদুজ্জামান পান্নু জেলা কৃষক লীগের সভাপতি মহসিন মাখন।

সাঁতার ফেডারেশেনের সহ সভাপতি লায়লা নুর জানান,“প্রথম সুইমিং ট্যালেন্ট হান্ট” নামের এই প্রতিযোগিতা হবে ৬৪ জেলায়। এ থেকে ৮২০ জনকে নির্বাচিত করা হবে। দ্বিতীয় বাছাইয়ে ১৬০ জনকে নির্বাচিত করা হবে। তাদের দেয়া হবে তিন মাসের প্রশিক্ষণ। পরে এখান থেকে বাছাই করা হবে ৬০ জনকে। পরে তাদের দেয়া হবে উচ্চ পর্যায়ের প্রশিক্ষণ। যাতে আবার বাংলায় উঠে আসে ব্রজেন দাস ও মোশারফরা। তাই ঢাকার বাইরে মুন্সীগঞ্জ দিয়েই শুরু হয়েছে আলোচিত এই প্রতিযোগিতা।

রাষ্ট্রীয় পুরস্কার প্রাপ্ত সাঁতারু মাহবুবুর রহমান জানান, এশিয়ার প্রথম ইংলিশ চ্যানেল বিজয়ী ব্রজেন দাস এবং দ্বিতীয় ব্যক্তি হিসাবে মোশারফ হোসেন খান ইংলিশ চ্যানেল পারি দেন। তাদের পূন্যভূমি মুন্সীগঞ্জ যেন আবার জেগে উঠেছে। অনেকদিন পর মুন্সীগঞ্জ সুইমিংপুলে প্রান চাঞ্চল্যতায় মুখরিত ছিল। তাই অনেক কৌতুহলী মানুষ এবং বিশিষ্ট সাঁতারুগণ। তারা এই প্রতিযোগিতা প্রত্যক্ষ করে। উপস্থিত সাধারণ দর্শকদের মধ্যে কামরুল হাসান বলেন, নদী মাতৃক বাংলাদেশ আবার সাঁতারে বিশ্বকে আলোকিত করবে আয়োজনটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

জনকন্ঠ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.