টঙ্গিবাড়ীতে মা ও মেয়েকে কুপিয়ে গুরুতর জখম

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলার কাঠাদিয়া শিমুলিয়ায় বসত ঘরে শিখ কেটে মোক্তা বেগম (৪৫) ও তার মেয়ে এইচ,এস,সি, শিক্ষার্থী শারমিন আক্তার (২০) কে কুপিয়ে জখম করেছে দূর্বৃত্তরা। সোমবার দিবাগত রাত মঙ্গলবার ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে উপজেলার কাঠাদিয়া-শিমুলিয়ায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ভোর রাতে সংঘবদ্ধ একটি সন্ত্রাসীদল শাহাজাহান দেওয়ানের বসতঘরে শিখ কেটে ভিতরে ডুকে তার স্ত্রী মোক্তা বেগম (৪৫) ও তার মেয়ে এইচ, এস, সি তে পড়ুয়া শারমিন (২০) কে এলোপাথারি কুপিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। পরে তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এসে তাদেরকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্য রত চিকিৎসক তাদের অবস্থা আসঙ্কাজনক দেখে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

তবে এ ঘটনার সাথে জড়িত কাউকে সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। বলে জানিয়েছেন আহতের স্বজনেরা। এ ঘটনায় টঙ্গিবাড়ী থানায় মামলার প্রস্তুতিচলছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে টঙ্গিবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতার মোঃ আলমগীর হোসেন বলেন, এ ঘটনায় একটি লিখিত অভিযোগের প্রস্তুতি চলছে। অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিডিনিউজ১৬

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.