শিমুলিয়া ঘাটে যাত্রীরা ঝড়-বৃষ্টি মানছেন না

ঈদের ছুটিতে আজও মঙ্গলবার দেশের দক্ষিনাঞ্চলের প্রবেশদ্বার শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুটে মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া ঘাটে গুরি গুরি বৃষ্টি নিয়ে নেমেছে ঘরমুখো যাত্রীদের ঢল। ফেরী, সীবোট ও লঞ্চে মানুষের উপচে পড়া ভীড় দেখা গেছে।

ঈদ উপলক্ষ্যে নৌরুটে সর্ব-সাকুল্যে ঈদে যাত্রীসুদ্ধ যানবাহন পারাপার করছে ১৮ টি ফেরী। শিমুলিয়া ও কাওড়াকান্দির উভয় ঘাটে রয়েছে ৫ শতাধিক সীবোট ও ছোট-বড় মিলিয়ে লঞ্চ রয়েছে ৮৪ টি।

দিনের শুরুতে সকালে শিমুলিয়া ঘাটে ছিল ঘরমুখো যাত্রীদের বেশ ভীড়। বেলা ৯ টার দিকে শিমুলিয়াঘাটে যাত্রীবোঝাই প্রায় ৪০ টি বাস, প্রাইভেটকার, মাইক্রোবাস, জীপ ও মিনি পিকআপ ভ্যান মিলিয়ে পারাপারের অপেক্ষায় ছিল ৫ শতাধিক যানবাহন। আজ মঈলবার সকাল সরেজমিনে শিমুলিয়া ঘাট ঘুরে এমনই চিত্র দেখা মিলেছে।

বিআইডব্লিউটিসির ব্যবস্থাপক (বানিজ্য) আব্দুল আলীম জানান, পদ্মায় প্রবল ¯্রােতের কবলে ফেরী গুলোকে গন্তব্যে পৌছতে প্রায় ৩০ মিনিট বেশী সময় লাগছে। তবে এবার ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের পদ্মা পারাপারে সমস্যার সম্মুখিন হতে হবে না। নিয়ম অনুযায়ী ফেরী পারাপার করলে সবাই বাড়ি যেতে পারবেন। এবার ঈদে ৩ টি ফেরী যুক্ত হয়ে নৌরুটে মোট ১৮ টি ফেরীতে যানবাহন পারাপার করছে একটি ভিআইপি ফেরি রয়েছে। সকাল থেকে ছোট বড় ৮ শত ছোট গাড়ী পার হয়েছে।

পদ্মা পাড়ি দিতে লঞ্চ ও সীবোটে অতিরিক্ত যাত্রী বোঝাই করার চিত্র দেখা গেছে দক্ষিনাঞ্চলের নৌরুটে। যাত্রীদের থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের মাধ্যমে সীবোটে যাত্রী পারাপার করছে।

মাওয়া ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোশারফ হোসেন জানান, ঈদে যাত্রীদের নিরাপদ যাত্রায় নিরাপত্তা চাঁদরে ঢাকা রয়েছে শিমুলিয়া-কাওড়াকান্দি নৌরুট। পদ্মায় পাহারা দিচ্ছে নৌ-পুলিশ। নৌরুটে এবার আইন-শৃংঙখলা রক্ষাকারী বাহিনীর ৫’শ সদস্য ঈদ যাত্রায় নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছেন। অতিরিক্ত ভাড়া নিচ্ছে তা যানা নেই। কেউ অভিযোগ করে নাই।

ক্রাইম ভিশন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.