পাঠক সংখ্যা

  • 7,198 জন

বিভাগ অনুযায়ী…

জনপ্রিয় খবর…

পুরনো খবর…

সিরাজদিখানে চুরি যাচ্ছে বেইলি সেতুর রেলিং

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলার রাজদিয়া-কুচিয়ামোড়া সড়কে ইছামতি নদীর ওপর নির্মিত বেইলি সেতুর রেলিং চুরি হয়ে যাচ্ছে। এছাড়া সেতুর দুই প্রান্তের সংযোগ সড়কে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় সেতুটি যানবাহন ও জনচলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

উপজেলার রাজদিয়া-কুচিয়ামোড়া সড়কে ইছামতির নদীর বেইলি সেতুর এক প্রান্তে রাজদিয়া গ্রাম ও অপর প্রান্তে চরকমলাপুর গ্রাম। রাজদিয়া, চরকমলাপুর গ্রাম ছাড়াও সেতুটির ওপর দিয়ে উপজেলার লতব্দী, বালুচর, বাসাইল, কেয়াইন ইউনিয়নের হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করেন। কিন্তু সেতুর রেলিং চুরি হয়ে যাচ্ছে। এতে যানবাহন ও জনচলাচলে সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। এছাড়া সেতুর দুই প্রান্তের এপ্রোচ সড়কে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় ঝুঁকি আরও বেড়েছে।

বেইলি সেতুর রেলিং না থাকায় ও সংযোগ সড়কে গর্তের কারণে সেখানে যে কোনো সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন স্থানীয় ও যানচালকরা। বিশেষ করে এ সেতুর ওপর দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে বিপাকে পড়তে হচ্ছে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের। আতঙ্কের মধ্য দিয়েই সেতু পারাপার হতে হচ্ছে তাদের।

উপজেলার চরকমলাপুর গ্রামের কুদ্দুছ বেপারি জানান, কয়েক বছর ধরেই রাতের অন্ধকারে বেইলি সেতুর রেলিং চুরি যাচ্ছে। এতে যানবাহন ও জনসাধারণের যাতায়াতের ক্ষেত্রে সেতুটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে শিশু, বৃদ্ধ ও শিক্ষার্থীদের আতঙ্কের মধ্যে সেতু পারাপার হতে হয়। রেলিং উধাও হওয়ার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি।

উপজেলার রাজদিয়া অভয় পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জাকিয়া মনি ও জাহিদা জানায়, রাজদিয়া ও চরকমলাপুর গ্রামের মধ্যে ইছামতি নদীর ওপর বেশ উচ্চতায় বেইলি সেতুটি নির্মিত হয়েছে। প্রতিদিন শত শত শিক্ষার্থী এ বেইলি সেতুর ওপর দিয়ে পায়ে হেঁটে যাতায়াত করেন। এছাড়া বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করে। অথচ দিনের পর দিন সেতুর রেলিং উধাও হয়ে যাচ্ছে। বর্তমানে বেইলি ব্রিজের দুই প্রান্ত থেকে শুরু করে মধ্যবর্তী অনেক স্থান জুড়ে রেলিং নেই। এতে নদীর দুই তীর থেকে বেশ উচ্চতা সম্পন্ন বেইলি ব্রিজের বিভিন্ন স্থানে রেলিং না থাকায় শিক্ষার্থীসহ জনসাধারণের যাতায়াতে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে বেইলি ব্রিজটি। আতঙ্কের মধ্য দিয়ে যানবাহনের চালকদের বেইলি ব্রিজ পারাপার হতে হচ্ছে। একই সঙ্গে বেইলি ব্রিজের দুই প্রান্তের এপ্রোচ সড়কে ছোট-বড় গর্তের কারণে যানবাহন চলাচলে যে কোনো মুহূর্তে দুর্ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ প্রসঙ্গে মুন্সীগঞ্জ সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মামুনুর রশীদ জানান, রাজদিয়া-কুচিয়ামোড়া সড়কে ইছামতি নদীর ওপর নির্মিত বেইলি সেতুর রেলিং চুরি যাওয়ার ঘটনাটি লজ্জাজনক। তবে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার বিজ

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

  

  

  

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.