মুল সাইটে যাওয়ার জন্য ক্লিক করুন

পাঠক সংখ্যা

  • 9,791 জন

বিভাগ অনুযায়ী…

পুরনো খবর…

শ্রীনগরে নৌকার জয়ে বাধা দুই বিদ্রোহী প্রার্থী

মোজাম্মেল হোসেন সজল: উপজেলা পরিষদ নির্বাচন ঘিরে মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলায় প্রার্থী ও তাদের সমর্থকদের মধ্যে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করছে। তবে, সাধারণ ভোটারদের মধ্যে নির্বাচন নিয়ে তেমন কোন আগ্রহ দেখা যায়নি। প্রার্থীরা ছুটে চলেছেন ভোটারদের কাছে। চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদে বিকল্পধারা এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে একজন বিএনপির প্রার্থী থাকলেও এই উপজেলায় মূলত প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সাথে দলের বিদ্রোহী বা স্বতন্ত্র প্রার্থীদের। ভোটের মাঠে নৌকা প্রতীকের বিপরীতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে দলের দুই বিদ্রোহী প্রার্থী। শান্তিপ্রিয় এই উপজেলাটিতে আগামী ৩১ শে মার্চ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

শ্রীনগর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে শ্রীনগর উপজেলায় চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদের তিনটিতেই জয় পায় বিএনপি। কেন্দ্র থেকে নিষেধাজ্ঞা থাকায় এবার চেয়ারম্যান পদে বিএনপির কেউ প্রার্থী হননি। জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে এই উপজেলায় তৃণমূলের ভোটে জেলা যুবলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. মশিউর রহমান মামুন প্রথম হলেও শেষাবধি কেন্দ্র থেকে তিনি মনোনয়ন পাননি। এই উপজেলায় এবার প্রথমবার নৌকা প্রতীক পেয়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. তোফাজ্জল হোসেন।

গত ১৪ মার্চ প্রতীক পাওয়ার পর প্রার্থীরা উঠান বৈঠক, গণসংযোগসহ নানা কৌশলে ভোটারদের মনোযোগ আকর্ষণের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। নৌকা প্রতীকের বিপরীতে মাঠে ফ্যাক্টর হয়ে দাঁড়িয়েছেন জেলা যুবলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক মো. মশিউর রহমান মামুন (আনারস) এবং কেন্দ্রীয় যুবলীগের সহ সম্পাদক মো. জাকির হোসেন দোয়াত কলম)। চেয়ারম্যান পদে বিকল্পধারার কুলা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন হাফিজুর রহমান ঝান্টু ও ভাগ্যকুল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি শহিদুল ইসলাম খান একুল (মোটরসাইকেল)।

স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা এবং গতবার সংসদ নির্বাচনে বঞ্চিত নেতারা আওয়ামী লীগ সমর্থিত তিনপ্রার্থীকে ঘিরে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। এখানে নৌকার সঙ্গে আনারস ও দোয়াত-কলম প্রতীকের ত্রিমুখী লড়াই হচ্ছে।

পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান জিঠু এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রেহেনা বেগম জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিলে তৃণমূলের ভোটে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে প্রথম হয়েছিলেন।

এই উপজেলায় পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ওয়াহিদুর রহমান জিঠু (টিউবওয়েল), উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি জহিরুল হক নিশাত সিকদার (তালা), উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক শেখ মো. আলমগীর (উড়োজাহাজ), বিকল্পধারার মো. জাহাঙ্গীর আলম (কুলা) এবং মো. নুর হোসেন (চশমা) প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এদের মধ্যে ওয়াহিদুর রহমান জিঠু ও জহিরুল হক নিশাত সিকদার শক্ত অবস্থানে রয়েছেন।

নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা হলেন, উপজেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রেহেনা বেগম (কলস), যুব মহিলা লীগের যুগ্ম আহবায়ক মর্জিনা বেগম মুন্নি (ফুটবল), বর্তমান নারী ভাইস চেয়ারম্যান জাহানারা বেগম (হাঁস) ও আঁখি শাহিন (প্রজাপতি)। এদের মধ্যে কলস প্রতীকের রেহেনা বেগম সুবিধাজনক অবস্থানে রয়েছেন।

এদিকে, নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রার্থী জেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদক জাহানারা বেগমকে ইতোমধ্যে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে এবং ভোটের মাঠেও তিনি শক্ত অবস্থান তৈরি করতে পারেননি।

এদিকে, জেলা নির্বাচন অফিস জানিয়েছেন, শ্রীনগর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মোট ভোটার ২ লাখ ১৮ হাজার ২৫৩জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ১১ হাজার ১৩৬ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৭ হাজার ১১৭ জন। উপজেলার মোট ভোট কেন্দ্র ৮৮টি।

অবজারভার

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

  

  

  

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.