পাঠক সংখ্যা

  • 8,846 জন

বিভাগ অনুযায়ী…

পুরনো খবর…

শেষ বেলায় উত্তাপ ছড়াচ্ছে মুন্সীগঞ্জে

উপজেলা নির্বাচনের শেষ বেলা এসে উত্তাপ ছড়িয়েছে মুন্সীগঞ্জের উপজেলাগুলো। হামলা, পাল্টা হামলাসহ একে অপরের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করে নানা ধরনের অভিযোগ করছেন আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থীরা।

বৃহস্পতিবার রাতে শহরের একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন করে মুন্সীগঞ্জ শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী এসএম মাহতাব উদ্দিন কল্লোল নৌকার প্রার্থী আনিছ-উজ্জামান সন্ত্রাসী, দুর্বৃত্ত এবং ভুল লোককে নৌকা প্রতীক দেয়ার বিরোধীতা করে বলেন, বিকেলে তাঁর ছয়জন কর্মীদের ওপর হামলা করে হাত-পা ভেঙ্গে দেন নৌকার সমর্থকরা। এ সময় নারী কর্মীদের ওপর নির্যাতনের অভিযোগও করেন তিনি। নৌকা প্রতীকের প্রার্থী দুই ছেলেসহ কয়েক সন্ত্রাসীকে গ্রেফতারেরও দাবি জানান তিনি।

এর আগে বুধবার রাতে জেলা শহরের আরেকটি রেষ্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন করে আওয়ামী লীগ মনোনীত সদর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী আনিছুজ্জামান আনিছ তাঁর প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মাহতাব উদ্দীন কল্লোল এবং স্থানীয় সংসদ সদস্য মৃণাল কান্তি দাসের বিরুদ্ধে আচরণবিধি লঙনের অভিযোগ আনেন। এ সময় আনিছুজ্জামানের পক্ষে তাঁর ছেলে জালাল উদ্দীন রুমি রাজন নৌকার প্রচার প্রচারণায় বাঁধা প্রদানের অভিযোগও আনেন। সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে সংসদ সদস্যকে নির্বাচনী এলাকা ছেড়ে যাবার দাবি করেন রুমি।

বৃহস্পতিবার বিকেলে শহরের দেওভোগ এলাকায় নৌকা মার্কার ক্যাম্প এবং বুধবার রাতে শহরের উত্তর ইসলামপুরের ফরায়েজি বাড়ি ঘাট এলাকায় আনারস প্রতীকের ক্যাম্প ভাঙচুর ও পোস্টারে অগ্নিসংযোগ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এদিকে, বৃহস্পতিবার রাতে গজারিয়া উপজেলা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অভিনেতা রফিক উল্লাহ সেলিম আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে মুন্সীগঞ্জে এসে একটি রেস্টুরেন্টে সংবাদ সম্মেলন করেন। নির্বাচনী প্রচার প্রচারণায় বাঁধা প্রদানসহ তাঁর কর্মীদের শারীরিক নির্যাতনের অভিযোগ আনেন সেলিম। এ সময় তিনি গজারিয়ার প্রতিটি কেন্দ্রকে ঝুঁকিপূর্ণ বলেও উল্লেখ করেন।

অবজারভার

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

  

  

  

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.