পাঠক সংখ্যা

  • 6,906 জন

বিভাগ অনুযায়ী…

পুরনো খবর…

জেনেভাতে মহান স্বাধীনতা দিবস ও বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী উদযাপিত

যথাযথ মর্যাদা, ভাবগাম্ভীর্য ও জাঁকজমকপূর্ণভাবে রবিবার সুইজারল্যান্ডের জেনেভাতে মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী (জাতীয় শিশু দিবস) পালন করেছে সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগ। জেনেভার প্রাণকেন্দ্র লা গারের কাছে ইউনিভার্সিটি উভরিয়ে ডো জেনেভার একটি অভিজাত হলে অর্ধদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়ে অনুষ্ঠানের সূচনা করা হয়।

সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শ্যামল খানের সঞ্চালনা এবং সভাপতি তাজুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র সচিব সহিদুল হক এবং বিশেষ অতিথি ছিলেন জেনেভাস্থ জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি এবং সুইজারল্যান্ডে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম. শামীম আহসান। আলোচনা অনুষ্ঠানের শুরুতেই সকল শহীদদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। কোরআন তেলাওয়াত করেন সাবেক সভাপতি হারুন অর রশিদ এবং গিতা পাঠা করেন আশোক সরকার রবি।

প্রধান অতিথি পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হক তাঁর বক্তব্যে গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে বাংলাদেশের স্বাধীনতায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বের কথা, এবং ত্রিশ লাখ শহিদের অবদানের কথা স্মরণ করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কিভাবে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে পদার্পণ করেছে, তা বিস্তারিত তুলে ধরেন। স্বাধীনতা ও বাংলাদেশের এ অগ্রযাত্রায় বিদেশি সব বন্ধু রাষ্ট্রের সহযোগিতার কথা তিনি কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন, এবং সেই সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বাংলাদেশে অবস্থানরত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের বর্তমান অবস্থা ও এর সমাধান সম্পর্কেও তিনি আলোচনা করেন।

রাষ্ট্রদূত এম. শামীম আহসান তার বক্তব্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অগ্রযাত্রার কথা উল্লেখ করে গত দশ বছরে বর্তমান সরকারের দ্রুত উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন। আন্তর্জাতিক মহলে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি তুলে ধরতে দূতাবাসের কার্যক্রমের ব্যাখ্যা দেন। এ সময় তিনি বাংলাদেশসহ বিশ্বব্যাপী ব্যাপক জাকজমক ভাবে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ১০০তম জন্মবার্ষিকী উদযাপনের প্রস্তুতির কথা উল্লেখ করেন।

সভাপতি তাজুল ইসলাম সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে সমাপনী বক্তব্য দেন। আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন সুইজারল্যান্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হারুন বেপারী, সহসভাপতি কারার কাওসার, জাহানারা বাশার, মোবারক আলী, যুগ্মসাধারণ সম্পাদক মাসুম খান দুলাল, উপদেষ্টা ইসরাক আহমেদ নিপুন, রজত কান্তি সিংহ, সাংগঠনিক সম্পাদক সাইদ জসিম, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক গৌরি চরন সসিম, আজাদ আকন্দ। এছাড়া বক্তব্য দেন আওয়ামী নেতা কাজী আসাদুজ্জামান, সুইস বাংলা এসোসিয়েসনের সভাপতি ইমরান খান মুরাদ, ঘাতক দালাল নির্মুল কমিটির সভাপতি খলিলুর রহমান।

শশী খানের উপস্থাপনায় সাংস্কৃতিক পর্বে সুইজারল্যান্ডের স্থানীয় শিল্পী ও শিশুদের নিয়ে দেশের নাচ ও গান উপস্থিত সবার মন কেড়ে নেয়- এ যেন সুইজারল্যান্ডের বুকে ছোট্ট একটা বাংলাদেশ। এতে অংশ নেন পুনম ইসলাম, গৌরিচরন রিমি, আশরাফুল ইসলাম আজাদ, জিশু বরুয়া , রবিন বরুয়া, সমিরন বরুয়া, জলি চৌধুরী, কারার কাওসার, মাসুম খান দুলাল ও গৌরিচরন সসিম। শিশু শিল্পী সুনাইনা চৌধুরী, আমরিন খান ও তুলি বরুয়ার মনমুগ্ধকর নাচ ও গান পরিবেশিত হয়।

জেনেভা স্থায়ী মিশনের ইকনোমিক মিনিস্টার সুপ্রিয় কুমার কুন্ডুর গাওয়া ‘ও আমার দেশের মাটি তোমার তরে ঠেকাই মাথা’ গানটির মধ্যে দিয়ে সাংস্কৃতিক পর্বের সমাপ্তি ঘটে।

সুইজাল্যান্ড আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে উপস্থিত সব শিশুদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়। দেশীয় খাবার ও মিষ্টি বিতরণের মধ্য দিয়ে অর্ধ দিবস ব্যাপী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারী সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন শ্যামল খান। অনুষ্ঠানটির স্থির ও চলচিত্র ধারণ এবং বিভিন্ন তথ্য সংগ্রহ করেন যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম এগার ও প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নিজাম উদ্দীন।

ইত্তেফাক/এমআই

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

  

  

  

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.