সিদ্ধিরগঞ্জে হাসপাতাল সিলগালা, ভুয়া চিকিৎসকের কারাদণ্ড

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে অনুমোদনবিহীন একটি বেসরকারি হাসপাতালে অভিযান চালিয়ে নুরুল ইসলাম শেখ নামে এক ভুয়া চিকিৎসককে আটক করেছে র‌্যাব। মঙ্গলবার রাতে ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সঙ্গে নিয়ে র‌্যাব সদর উপজেলার সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সাইনবোর্ড এলাকায় ফ্যামিলি ল্যাব হাসপাতালে এ অভিযান চালায়। এ সময় সনদ না থাকায় ওই ভুয়া চিকিৎসককে এক বছরের কারাদণ্ডসহ প্রতিষ্ঠানটি সিলগালা করে দেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

অভিযান শেষে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, নুরুল ইসলাম মূলত একজন মেডিক্যাল এ্যাসিসট্যান্ট। তিনি এম.বি.বি.এস ডাক্তারের ডিগ্রি ব্যবহার করে রোগীদের ব্যবস্থাপত্র দিয়ে আসছিলেন। এই অপরাধে তাকে এক বছরের সাজা দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে প্রষ্ঠিানটি কোনও লাইসেন্স বা বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় প্রাথমিকভাবে এটি সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। এটি পরিচালনার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে তিনি জানান।

র‌্যাব-১১ এর ক্রাইম প্রিভেনশন স্পেশালাইজড কোম্পানির কমান্ডার মেজর তালুকদার নাজমুস সাকিব জানান, আটক ও সাজাপ্রাপ্ত ভুয়া চিকিৎসক নুরুল ইসলাম শেখ মুন্সীগঞ্জ জেলার বাসিন্দা। গত দুই বছর ধরে তিনি এই প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত আছেন। রোগীদের ব্যবস্থাপত্র দিয়ে চিকিৎসা দেওয়ার পাশাপাশি নিজের তৈরি ভেজাল অষুধ বিক্রি করার অভিযোগও রয়েছে তার বিরুদ্ধে। এছাড়া প্রতিষ্ঠানের মালিক বেলাল হোসেন সরেজমিন একটি আন্ডারগ্রাউন্ড পত্রিকার প্রকাশক ও সম্পাদক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিয়ে অনুমোদনবিহীন এই হাসপাতালটি পরিচালনা করে আসছেন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব জানতে পারে কোনও চিকিৎসক ছাড়াই শুধুমাত্র একজন মেডিক্যাল এ্যাসিসটেন্ট দিয়ে এই হাসপাতালটি দীর্ঘদিন ধরে পরিচালিত হয়ে আসছে এবং রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। সেই তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব সেখানে অভিযান চালিয়ে অভিযোগের সত্যতা পায়। প্রতিষ্ঠানটির কাগজপত্র পর্যালোচনাসহ ভূয়া চিকিৎসক নুরুল ইসলামের উৎপাদিত ঔষুধের ব্যাপারেও তদন্ত করা হবে বলে র‌্যাব জানিয়েছে।

বাংলা ট্রিবিউন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.