সিরাজদিখানে ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে জমি দখলের চেষ্টা

সিরাজদিখানে ইউপি চেয়ারম্যানের নির্দেশে স্কুলের নামে জমি দখলের চেষ্টা, লুটপাট, ভাঙ্গচুর, আহত শিশুসহ ৫, থানায় অভিযোগ, আদালতে মামলা। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বয়রাগাদি ইউনিয়নের বয়রাগাদি বাবুর বাড়ি এলাকায়। এ ঘটনায় বয়রাগাদি গ্রামের আলী হোসেনের ছেলে মো. মহিবুর রহমান বাদী হয়ে সিরাজদিখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। তাতে অগ্রগতি না হওয়ায় তিনি সোমবার (৬ মে) মুন্সীগঞ্জ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন।

গত বৃহস্পতিবার (২ মে) সন্ধ্যায় বয়রাগাদি উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন আলী হোসেনের নির্মাণাধিন দোকান ভাঙ্গচুর ও লুটপাটের অভিযোগ উঠেছে। এ সময় আলী হোসেনের পরিবারের উপর হামলা চালায় বয়রাগাদি ইউপি চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন গাজীর লোকজন সাহেদ আলী গাজী (৪৫), মো. নাগর আলী বেপারী (৪৮), আলী (৪৩), মজিবর রহমান গাজী (৪৫), ইব্রাহিম গাজীসহ ১০/১২ জন। হামলায় আহত হয় মতিউর (৩১), রিজভী (১১), আলেয়া (৩২), সোনিয়া আক্তার (২৬), মাজেদা বেগম (৬৫)।

মো. মহিবুর রহমান জানান, আমাদের জায়গায় দোকানঘর তুলছিলাম সন্ধ্যায় চেয়ারম্যানের নির্দেশে ১০/১২ জনের একটি দল দোকান ঘর ভাঙ্গচুর করে এবং টিন, কাঠ লুটপাট করে নিয়ে যায়। আমরা বাধা দিলে আমাদের মারধর করে রক্তাক্ত জখম করে। আমরা রাতে হাসপাতালে যেতে পারি নাই। বাড়িঘর অবরুদ্ধ করে রেখেছিল। একদিন পর আমরা পেছনের দিক দিয়ে পালিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে চিকিৎসা নেই। থানায় লিখিত অভিযোগ করেও কোন ফল পাচ্ছি না চেয়ারম্যানের কারণে। তাই বাধ্য হয়ে আদালতে গিয়ে মামলা করেছি।

স্কুল কমিটির সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা ফজলুল হক ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ওরা ঘর তুলতে ছিল চেয়ারম্যানের লোকজন ভেঙ্গে দিয়েছে। জায়গাটি আলী হোসেনের সিমানা বরাবর আলাদা একটি প্লট। আমি সভাপতি থাকাকালিন সামাজিক ভাবে একটা নিস্পত্তি করেছিলাম। স্কুলের জায়গায় ওরা আসবে না স্কুল ও ওদের দিকে যাবে না।

স্থানীয় অনেকে জানান, এই সম্পত্তি নিয়া মামলা চলছে। সরকারের দাবী গভমেন্ট এর জায়গা। ক’ গেজেটে আছে। আর আলী হোসেন এর যদি কাগজপত্র কিছু না থাকে তাহলে গভমেন্টের বিরুদ্ধে মামলা নেয় নাকি জজ। চেয়ারম্যানতো গায়ের জোরে চলে, আইন কানুন তো কিছুই বুঝে না। স্কুলের পিছন দিকে আলী হোসেনের বাড়ির রাস্তা সেখানে তার ছেলেরা দোকান তুলছিল। চেয়ারম্যান লোকজন দিয়া ভাইঙ্গা দিল।

বয়রাগাদি ইউপি চেয়ারম্যান ও স্কুল কমিটির সভাপতি আলাউদ্দিন গাজী জানান, আলী হোসেন ও তার ছেলেরা স্কুল সংলগ্ন এই জায়গার একটি গাছ এর আগে কেটেছিল তখন বাধা দেওয়া হয়েছিল। এরপর তারা আর এখানে আসবে না বলেছে। কিন্তু এবার তারা দখলের চেষ্টা করে দোকান ঘর তুলতে ছিল তাই কমিটির লোকজন বাধা দিয়েছে। থানায় গিয়ে স্কুল কমিটির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে। ওরাও অভিযোগ করেছে। এ নিয়ে থানায় বসার কথা ছিল। ওরা যদি কাগজ দেখাতে পারে তাহলে আমরা ছেড়ে দিব। এর আগে নিম্ন আদালত ও উচ্চ আদালতে তারা হেরেছে।

আমার সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.