১৫ বছর অব্যবহৃত টঙ্গীবাড়ির সিংহের নন্দন খালের সেতু

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ি উপজেলার সিংহের নন্দন খালের ওপর সেতু থাকলেও নেই সেতুর সংযোগ সড়ক। প্রায় ১৫ বছর ধরে সিংহের নন্দন খালের ওপর সেতুটি বিরাজমান থাকলেও সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি। ফলে জনসাধারণ পায়ে হেঁটে চলাচল করতে পারলেও যানবাহন চলাচলে কোনো কাজেই আসছে না সেতুটি।

এলাকাবাসী জানায়, উপজেলার আড়িয়ল ইউনিয়নের শানবাড়ি মোড়ে সিংহের নন্দন খালের ওপর প্রায় দেড় যুগ আগে এই সেতুটি নির্মিত হয়। এটি সিংহের নন্দন সেতু ছাড়াও শানবাড়ি সেতু হিসেবেও পরিচিত। আড়িয়ল স্বর্ণময়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের পশ্চিম পাশে এ সেতুর অবস্থান। সেতুর ওপর দিয়ে বিদ্যালয়ের অসংখ্য শিক্ষার্থী প্রতিদিন পায়ে হেঁটে যাতায়াত করছে। কিন্তু সংযোগ সড়ক না থাকায় সেতুর ওপর দিয়ে যাতায়াতের ক্ষেত্রে কোনো যানবাহন চলাচল করতে পারছে না। স্থানীয় মোহাম্মদ হোসেন জানান, এক সময় এ খালের ওপর কাঠেরপুল ছিল। আর ওই পুলের ওপর দিয়েই সিংহের নন্দন, ফজুশাহ, গোয়ালপাড়া, ডুলিহাটা-প্রভৃতি গ্রামের জনসাধারণ যাতায়াত করত পায়ে হেঁটে। কাঠেরপুল ভেঙে পাকা সেতু নির্মিত হলেও আজও সেতুর দুই পাশে সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হয়নি। এতে গ্রামগুলোর বাসিন্দাদের এখনও পায়ে হেঁটেই চলাচল করতে হয়। সংযোগ সড়ক নেই সেতুর দুই পাশে। তাই দীর্ঘদিন ধরেই যানবাহন চলাচল করতে না পারায় সেতুটি তেমন কোনো কাজে আসছে না।

এদিকে, সেতু নির্মাণের ফলে আড়িয়ল ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের মধ্যে সড়ক যোগাযোগ গড়ে উঠার সম্ভাবনা দেখা দেয়। কিন্তু এ সেতুতে সংযোগ সড়ক না থাকার কারণে তা হয়ে উঠছে না। সংযোগ সড়কের অভাবে এ সেতুটি তেমন কোনো উপকারেই আসছে না। উপরন্তু সেতুর ওপর যানবাহন চলাচল তো দূরের কথা, পায়ে হেঁটে যাতায়াতেই দুর্ভোগের কবলে পড়তে হচ্ছে জনসাধারণকে। অথচ সেতুর দুই পাশে সংযোগ সড়ক নির্মিত হলে আড়িয়ল ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রামের সঙ্গে উপজেলা সদরের সরাসরি যোগাযোগ ব্যবস্থা গড়ে উঠতে পারত। গ্রামগুলোর বাসিন্দাদের যাতায়াতের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ ও ভোগান্তি দূর হওয়ার মধ্য দিয়ে সিংহের নন্দন খালের ওপর সেতু নির্মাণের প্রকৃত উদ্দেশ্য বাস্তবায়িত হত।

এ প্রসঙ্গে টঙ্গীবাড়ি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জগলুল হালদার ভুতু জানান, সেতুটির দুই পাশে সংযোগ সড়ক নির্মাণের লক্ষ্যে অতি দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

শেয়ার বিজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.