ধর্ষণ মামলায় মুন্সীগঞ্জের কোলা ইউপি চেয়ারম্যানের গ্রেফতারি পরোয়ানা বহাল

মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান থানার কোলা ইউনিয়নের এক কিশোরীকে ধর্ষনের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মীর লিয়াকত আলীর জামিন চার সপ্তাহ স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে গত ২০ মে মুন্সীগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের জারি করা গ্রেফতারি পরোয়ানা বহাল রেখেছেন রেখেছেন আদালত।

মীর লিয়াকত আলীকে ট্রাইব্যুনালের দেয়া জামিনের বিরুদ্ধে ধর্ষিতার মায়ের করা আপিলের শুনানি শেষে গত ২১ আগস্ট বিচারপতি মো. মঈনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি খিজির হায়াত সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টে দ্বৈত বেঞ্চ এ স্থগিতাদেশ দেন। বুধবার (২৮ আগস্ট) এ আদেশের অনুলিপি পাওয়া গেছে বলে আপিলকারীর আইনজীবী জানান। আদালতে আপিলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এ বি এম ওয়ালিউর রহমান খান। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. আশেক মোমিন।

আইনজীবী ওয়ালিউর রহমান খান জানান, কোলা ইউনিয়নের ওই কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করা হলে পুলিশ তদন্ত শেষে ইউপি চেয়ারম্যান মীর লিয়াকত আলীর নাম বাদ দিয়ে দুইজনের নামে অভিযোগপত্র জমা দেয়। এর বিরুদ্ধে বাদী নারাজি আবেদন করেন।

গত ২০ মে মুন্সীগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আমলে নিয়ে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। পরে ট্রাইব্যুনালে ইউপি চেয়ারম্যান মীর লিয়াকত আলী আত্মসমর্পণ করে জামিন পান। এ জামিনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন ভিকটিমের মা। এ আপিলেই জামিন স্থগিত করে গ্রেফতারি পরোয়ানার আদেশ বহাল রাখলেন হাইকোর্ট।

নয়া দিগন্ত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.