মুল সাইটে যাওয়ার জন্য ক্লিক করুন

পাঠক সংখ্যা

  • 9,283 জন

বিভাগ অনুযায়ী…

পুরনো খবর…

সিরাজদিখানে স্কুলে সর্বত্র কোচিংএর জাল

নাছির উদ্দিন: সিরাজদিখান উপজেলার স্কুল গুলুতে সর্বত্র কোচিং জাল। এ জালে আটকা পরেছে অভিবাবক ও ছাত্র ছাত্রীরা। উপজেলার সিরাজদিখান উচ্চ বিদ্যালয়, রশুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, সাতিয়ানতলী উচ্চ বিদ্যালয়, মাস্টার আব্দুর রহমান একাডেমী, রাজদিয়া অভয় পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়, মালপদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়, মালখানগর হাই স্কুল সহ বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষকরা রুম ভাড়া সাথে নিজ স্কুলেই কোচিং বাণিজ্য করছেন। এমন অভিযোগ উপজেলার প্রতিটি বিদ্যালয়েই রয়েছে। শিক্ষার্থীরা তাদের কাছে কোচিং না করলে পরীক্ষায় ফেল করানোর ভয় দেখানো হয় বলে নাম না প্রকাশ সর্তে কয়েকজন শিক্ষার্থী জানিয়েছেন।

জানা যায়, খাসমহল বালুচর উচ্চ বিদ্যালয়ে বর্তমানে ছয়শতাধীক ছাত্র-ছাত্রী রয়েছে। এদের মধ্যে অনেকে কাজল স্যার, সাখাওয়াত হোসেন স্বপন, মামুন, সুমাইয়া ইসলাম ও বিল্লাল হোসেনের কাছে কোচিং করেন। এছাড়াও উপজেলার বিভিন্ন স্কুলে সকাল ৭ টা থেকে ৯ টা পর্যন্ত বিদ্যালয় কক্ষে অতিরিক্ত ক্লাসের নামে বিভিন্ন শ্রেণির শিক্ষার্থীদের কোচিং করানো হয়। সরকারের নীতিমালা অনুযায়ী বিদ্যালয়ে অতিরিক্ত ক্লাস করানো যাবে প্রতি বিষয়ে ১৫০ টাকা করে অভিবাবকদের আবেদন স্বাপেক্ষে। প্রতি মাসে ১২ দিন ক্লাস চলবে। বিদ্যালয়টিতে কোন নীতি না মেনে ৫শত টাকা বা তার অধিক করে মাসিক কোচিং ফি নেওয়া হচ্ছে। শতকরা ১০ টাকা করে বিদ্যালয় ফান্ডে জমা দিচ্ছেন না কোচিং শিক্ষকরা।

এ ব্যাপারে খাসমহল বালুচর উচ্চ বিদ্যালয়ের গনিত ও বিজ্ঞান বিষয়ক সিনিয়র সহকারি শিক্ষক মো. বিল্লাল হোসেন বলেন, আমি কোচিং করাই না। মাঝে মধ্যে স্কুলের শিক্ষার্থীরা তাদের সমস্যার জন্য আমার কাছে আসে, তা আমি দেখে দেই।

বালুচর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আলী আশরাফ জানান, এ মাস থেকেই সরকারি নীতিমালা অনুযায়ী বিশেষ ক্লাস শুরু হয়েছে। কোন কোটিং বাণিজ্য নয়। তবে বাইরে কোন শিক্ষক করে থাকলে সেটা আমার জানা নাই।

খাসমহল বালুচর উচ্চ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মো. মোস্তফা কামাল বলেন, বিল্লাল হোসেনের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে আমরা কয়েকটা ব্যবস্থা নিয়েছি, তার বিভিন্ন অপকর্মের কারণে। এর পরেও যদি তিনি কোন অপকর্ম করেন তাহলে তার বিরুদ্ধে আরো কঠোর ব্যবস্থা নিবো আমরা।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার কাজী আব্দুল ওয়াহিদ মোঃ সালেহ বলেন, স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির লোকজন প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা নিবে, আমাদের জানালে বিষয়টি দেখবো।

Leave a Reply

You can use these HTML tags

<a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <s> <strike> <strong>

  

  

  

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.