সিরাজদিখানে ফসলি জমির মাটি কাটতে বাধা দেয়ায় আ.লীগ নেতাকে মারধর

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানের লতব্দী ইউনিয়নের খিদিরপুর গ্রামে ফসলি জমির মাটি কাটার প্রতিবাদ করায় ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতিকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, খিদিরপুর গ্রামের মৃত আওলাদ হোসেন সেন্টুর ছেলে ভূমিদস্যু ও মাদক ব্যবসায়ী শামীম অবৈধভাবে দীর্ঘদিন যাবত এলাকায় ফসলি জমির মাটি কেটে বিভিন্ন ইট ভাটায় বিক্রি করে আসছিলেন। সম্প্রতি ওই এলাকার জমির মালিকরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে জমির মাটি কাটা ও বিক্রি না করার সিন্ধান্ত নেন। বুধবার সকালে শামীম নিষেধ অমান্য করে লোকজন নিয়ে মাটি কাটা শুরু করেন। এ সময় জমির মালিকরা গিয়ে বাধা দিলেও শামীম মাটি কাটতে থাকেন।

পরে জমির মালিকরা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের দুই নং ওয়ার্ড সভাপতি দেলোয়ার হোসেন দিলুকে বিষয়টি অবহিত করেন। তিনি জমির মালিকদের সঙ্গে নিয়ে শামীমকে মাটি কাটতে নিষেধ করেন। এতে শামীম তার ওপর চড়াও হয়ে কিল ঘুষি মেরে তাকে মারাত্মকভাবে আহত করেন। পরে স্থানীয়রা দিলুকে উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে যান।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক জনপ্রতিনিধি জানান, ভূমিদস্যু শামীম সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ঘোরাফেরা করেন, যাকেতাকে মারধর করেন। শামীম একজন মাদক ব্যবসায়ী ও চিহ্নিত ভূমিদস্যু। তার ভয়ে কেউ প্রতিবাদ করতে পারে না।

জাগো নিউজ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.