শ্রীনগরে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা নির্মাণ শ্রমিককে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিলেন ইউএনও

আরিফ হোসেনঃ শ্রীনগরে করোনা ভাইরাস সন্দেহে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা এক নির্মাণ শ্রমিককে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তার। শনিবার তিনি ওই নির্মাণ শ্রমিক ও তার ভাইকে খাদ্য সামগ্রী প্রদান করেন।

শ্রীনগর থেকে যে ২জনের কাছ থেকে নমুনা সংগ্রহ করে করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে তাদের ১ জন নির্মাণ শ্রমিক শিমু (২৩)। সে কুষ্টিয়া জেলার মিরপুর উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামের সৃজন মিয়ার ছেলে। শিমু একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের হয়ে উপজেলার বীরতারা ইউনিয়নের মাশাখোলা গ্রামে নির্মাণ শ্রমিকের কাজ করতো। সেখানে অন্যান্য সহকর্মীর সাথে সে একটি বাড়িতে ভাড়া থাকত। মাঝখানে বিরতি দিয়ে সে ওই এলাকায় ৩ দিন আগে কাজে গিয়ে অসুস্থ্য হয়ে পরে। পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসলে কর্তব্যরত ডাক্তার করোনা ভাইরাসের পরীক্ষার পরামর্শ দিয়ে তাকে ঢাকায় যেতে বলেন। বিষয়টি চাউর হয়ে গেলে শিমুর সহকর্মীরা তাকে আর মাশাখোলা গ্রামে ঢুকতে দেয়নি। এতে সে অসহায় হয়ে পরে। পরে শ্রীনগর থানার ওসি(তদন্ত) হেলালউদ্দিনের সহায়তায় শিমুর বড় ভাই তাকে হাঁসাড়ার একটি পরিত্যাক্ত বাড়িতে রাখে।

শনিবার সকালে উপজেলা নির্বাহী অফিসার খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন শিমু ও তার বড় ভাই অর্থনৈতিক ভাবে অসচ্ছল। কাজ না করলে তাদের খাবার জোটবেনা। তাই সাথে সাথে তিনি হাঁসাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোলায়মান খাঁনের সহযোগীতায় হোম কোয়ারেন্টাইনের সময়ে তাদের খাদ্য সহায়তা নিশ্চিত করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার এসময় শিমুর বড় ভাইকে সাবধানতা অবলম্বন করার পরামর্শ দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.