মুন্সীগঞ্জে আইনসৃংঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থানেও নিশ্চিত হয়নি সামাজিক দূরত্ব

মোঃ জাফর মিয়া: মুন্সীগঞ্জ জেলায় দিন দিন বেড়েই চলছে করোনা রোগীর সংখ্যা। আইনসৃঙ্খলা বাহিনীর কঠোর অবস্থানের মধ্যেও মুন্সীগঞ্জ শহরের বাজারগুলোতে আজও সমাজিক দূরত্ব নিশ্চিত হয়নি।

গতকাল মুন্সীগঞ্জ শহরের প্রধান বাজার থেকে মাছ এবং সবজি বিক্রির হাট সুপার মার্কেট এলাকায় স্থানান্তার করা হয়। প্রধান সড়কের রাস্তায় সবজি এবং মাছ বাজার বাসানো হয়। সেখানেও নেই কোন সমাজিক দূরত্ব। মানুষের উপচে পড়া ভিড় । লোকসমাগম কমানোর জন্য মুন্সীগঞ্জ বাজার থেকে সবজি এবং মাছ বাজার সরিয়ে নিলেও সেখানকার চিত্র আগের মতোই।

পাশাপাশি জেলার প্রধান প্রবেশদ্বার মুক্তারপুর সেতু দিয়ে পায়ে হেঁটে ঢাকা- নারায়গঞ্জ থেকে লোকজন এখনও যাওয়া আসা করছে। কেউ বা ব্যবহার করছেন ব্যাটারি চালিত ইজি বাইক ও মিশুক। জেলা শহরটিতে এখনই সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করা না হলে মুন্সীগঞ্জ করোনা ঝুঁকিতে পড়বে এমনইটাই মনে করছেন মুন্সীগঞ্জ বাসী।

দেশের এই প্রানঘাতি করোনা দূর্যোগ মোকাবেলায় প্রশাসনকে আরো কঠোর হওয়ার পরামর্শ তাদের। অন্যদিকে প্রয়োজনে/ অপ্রয়োজনে মানুষের ঘর থেকে বের হওয়া থামছেই না। অনেকে ব্যবহার করছেনা সুরক্ষা মাস্ক । বাজারগুলোতে কেউ মানছেনা সমাজিক কিংবা শারীরক দূরত্ব।

গণপরিবহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকলেও সিএনজি, অটোরিক্সা, ব্যাটারি চালিত রিক্সায় যাত্রী বহন থেমে নেই। এসব ঠেকাতে শিমশিম খাচ্ছে পুলিশ ।

মানুষকে ঘরে থাকার জন্য আইনসৃংঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বার বার অনুরোধ করা হচ্ছে। মানুষকে বার বার বুঝিয়ে বাড়ীতে থাকার পরামর্শ দিচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সদস্যরা। তারপরও মানুষ সচেতন হচ্ছেনা।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) দীপক কুমার রায় বলেন, সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করতে ২৪ ঘন্টাই চেষ্টা চালানো হচ্ছে। বার বার বুঝিয়ে মানুষকে বাড়ীতে পাঠানো হয়।

বাজারগুলোতে মনিটরিং, এবং সমাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার লক্ষে সেনাবাহিনী এবং পুলিশ কাজ করছে। এতো তৎপরতার পরও মানুষ সচেতন হচ্ছে না।

খোঁজ ২৪ বিডি/আরএইচ/জেএম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.