টঙ্গীবাড়ীতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডাক্তার শূণ্য রেখে চলছে স্থাণীয় ক্লিনিকে সিজার

মোজাফফর হোসেন: মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে মিলছে না কোন চিকিৎসা সেবা। চিকিৎসা সেবা না পেয়ে ঘণ্টার পর ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে থেকে ফিরে যাচ্ছেন রোগীরা। সরকারি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ডাক্তার শূন্য রেখে স্থানীয় ক্লিনিকগুলোতে সিজার নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন ওই হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকগান।

রবিবার সরেজমিনে হাসপাতালে গিয়ে দেখা যায়, রোগীরা লম্বা লাইনে সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে আছেন। কিন্তু হাসপাতালে রোগী দেখার কোন ডাক্তার নেই। ওই হাসপাতালে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তাসলিমা ইসলাম স্থানীয় ক্লিনিকে সিজার নিয়ে ব্যস্ত আছেন বলে স্থানীয় সুুত্রে জানাগেছে। পরে সে হাসপাতালে এসে ডাক্টারদের নিয়ে মিটিং করেন আর অন্যদিকে রোগীর সেবা না পেয়ে অসহায় হয়ে বাড়ী ফিরে যান।

জানাগেছে, হাসপাতালের স্বাস্থ্য কর্মকর্তাসহ কতিপয় ডাক্তার প্রতিদিন সকালে সারে নয়টার দিকে ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে হাসপাতালে প্রবেশ করে হাজিরা খাতায় স্বাক্ষর দিয়ে হাসপাতাল হতে বেরিয়ে যান। পরে স্থানীয় কিছু ক্লিনিকে তারা স্বাস্থ্যসেবা দেন। যখন স্থাণীয় ক্লিনিকগুলোতে রোগী থাকেনা তখন নামেমাত্র স্বাস্থ্যসেবা দেন সরকারী ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবনে।

এ ব্যাপারে ভক্তভোগী সহিদুল ইসলাম জানান, আমি উপজেলার পাচগাও গ্রাম থেকে ৪ মাসের এক শিশু নিয়ে আসছি। ডাঃ দেখাতে না পেরে চলে যাচ্ছি। এখন এই শিশু বাচ্চা নিয়ে আমি কোথায় যাবো ভেবে পাচ্ছিনা। সোনারং গ্রামের নারগিস জানাান, আমি সকাল ৯টার দিকে ১বছরের শিশু বাচ্চা নিয়ে আসছি। এখন সারে ১১টা বাজে কোন ডাঃ দেখাতে পারলাম না। উপজেলা পুড়াপাড়া গ্রামের আব্দুল হাকিম জানান, আমি বাত ব্যাথায় ভুগছি সকাল সাড়ে ৮টায় আসছি এখন পোনে ১২টা বাজে কোন ডাঃ নাই।

এ ব্যপারে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা তাছলিমা ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে আমি এখোন কোন মন্তব্য করবো না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.