প্রেমিক-প্রেমিকা সেজে অটোরিকশা ছিনতাই করে তারা

প্রেমিক-প্রেমিকা সেজে অটোরিকশা ভাড়া নেন তারা। এরপর ভাড়া করা রিকশায় চেপে চলে যান নির্জন কোনো জায়গায়। সেখানে ওতপেতে থাকে চক্রের অন্য সদস্যরা। গন্তব্যে আসার পর ধারালো অস্ত্র ঠেকিয়ে অটোরিকশা ছিনিয়ে নেয়া হয়।

কেরানীগঞ্জে এরকম একটি চক্রের ৬ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র্যাসব। পরে তাদের দেয়া তথ্যমতে কেরানীগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখানের একাধিক গ্যারেজে অভিযান চালিয়ে ৭টি অটোরিকশা ও ১টি সিএনজি উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়াও গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ১টি সুইচ গিয়ার চাকু, ২টি বড় ছোরা ও ১টি চাইনিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়েছে।

রোববার রাতে সাংবাদিকদের কাছে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-১০ কেরানীগঞ্জ ক্যাম্পের ভারপ্রাপ্ত কমান্ডার এএসপি আবুল কালাম আজাদ।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, কেরানীগঞ্জের ঝিলমিল এলাকায় ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও সিএনজিচালিত অটোরিকশা ছিনতাই হচ্ছে বলে র্যাএবের কাছে ভুক্তভোগীরা অভিযোগ করে আসছিলেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে আমাদের একাধিক টিম ছিনতাইয়ের সঙ্গে যুক্ত চক্রটিকে ধরার জন্য নজরদারি শুরু করে।

গত ২৬ ডিসেম্বর রাত ৯টার দিকে প্রেমিক-প্রেমিকা সেজে চক্রের দুই সদস্য কদমতলী গোলচত্বর থেকে একটি অটোরিকশা ভাড়া নেয়। ঝিলমিল আবাসন প্রজেক্টের নির্জন স্থানে আসার সঙ্গে সঙ্গে চক্রের ৪-৫ সদস্য ধারালো অস্ত্রের মুখে চালককে জিম্মি করে অটোরিকশাটি ছিনিয়ে নেয়।

এ সময় চালকের চিৎকারে টহলে থাকা র্যারব সদস্যরা রানা (২৪) নামে এক ছিনতাইকারীকে ধরে ফেলে, বাকিরা পালিয়ে যায়। পরে রানার স্বীকারোক্তিতে চক্রের সক্রিয় ছিনতাইকারী হাবিল (২৪) ও সালাউদ্দিনকে (৩০) গ্রেফতার করে র্যাকব। তাদের তথ্যমতে, কেরানীগঞ্জের ইকুরিয়া, আবদুল্লাপুর ও মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান থানাধীন চরগুলগুলিয়া এলাকার একাধিক গ্যারেজে অভিযান চালিয়ে ছিনতাই হওয়া ৭টি অটোরিকশা ও ১টি সিএনজি জব্দ করা হয়েছে। এছাড়াও চক্রের সদস্যদের কাছ থেকে ছিনতাইয়ের কাজে ব্যবহৃত একটি সুইচ গিয়ার চাকু, ২টি বড় ছোরা ও ১টি চাইনিজ কুড়াল উদ্ধার করা হয়েছে।

র‌্যাব কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ আরও বলেন, চক্রটিতে একজন নারী রয়েছে। ওই নারী প্রেমিকা ও চক্রের যে কোনো পুরুষ সদস্য প্রেমিক সেজে অটোরিকশা ভাড়া নিয়ে ছিনতাই করত। এরপর সেটি কেরানীগঞ্জ ও সিরাজদিখানের বিভিন্ন গ্যারেজ মালিকের কাছে কমদামে বিক্রি করে দিত। চক্রটিতে ৮-৯ জনের মতো সদস্য রয়েছে। এর মধ্যে সরাসরি জড়িত ৩ জন ও রিকশা কেনাবেচার সঙ্গে জড়িত ৩ জনসহ মোট ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারে র্যাওবের অভিযান অব্যাহত আছে।

র‌্যাবের হাতে গ্রেফতার রানা জানায়, গত ৮ দিনে তারা ৮টি অটোরিকশা ছিনতাই করেছে। এর মধ্যে ৭টি অটোরিকশা র্যারব উদ্ধার করেছে।

দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (অপারেশন) মো. শাহাদাৎ হোসেন জানান, এ ঘটনায় র‌্যাবের পক্ষ থেকে একটি ডাকাতির মামলা দায়ের করা করেছে। ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে গ্রেফতারকৃতদের আদালতে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.