চাচার রামদার আঘাতে ভাতিজার হাত বিচ্ছিন্ন

মুন্সিগঞ্জের টঙ্গিবাড়ী উপজেলায় চাচার রাম দায়ের আঘাতে ভাতিজার হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। শুক্রবার (৫মার্চ) রাতে উপজেলার বলই গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, উপজেলার বলই গ্রামের শফিউদ্দন সেখের ছেলে আউটশাহী ইউপি সদস্য শিপন মেম্বারের (৪৫) সাথে তার ভাই সাত্তার সেখ গংদের জমিজামা নিয়ে বিরোধ চলে আসছিলো। পরে শুক্রবার রাতে পুকুরে মাছ ধরা নিয়ে দুপক্ষ ফের সংঘর্ষে জড়িয়ে পরে। এ সময় চাচা শিপন মেম্বার রামদা দিয়ে কোপ মারলে ভাতিজা রমজানের (২৩) বাম হাতের ডানা বরাবর ঝুলে যায়।

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে টঙ্গিবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স (হাসপাতাল) নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরবর্তীতে চিকিৎসককে তার হাতটি শরীর হতে বিচ্ছিন্ন করে ফেলতে হয়।

প্রায় ৩ মাস আগে বলই গ্রামের মুদি ব্যবসায়ী ইমরান সেখের বাড়ির গাছ কাটা নিয়ে তর্কবিতর্কের জের ধরে শিপন মেম্বার ছুরি দিয়ে কুপিয়ে ইমরান সেখের পেটে, বুকে একাধিক আঘাত করে। সেই ঘটনায় পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করলে দীর্ঘদিন জেল খেটে জামিনে বের হয় শিপন।

এ বিষয়ে টঙ্গিবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন অর রশিদ জানান, শুক্রবার রাত ১২টার দিকে মৌখিক অভিযোগের প্রেক্ষিতে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে অভিযুক্তরা পালিয়ে যায়। আহত যুবককে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। লিখিত অভিযোগ দায়েরের প্রক্রিয়া চলছে।

দৈনিক অধিকার

Leave a Reply

Your email address will not be published.

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.