৪০ মিনিটের পথ, সময় লাগছে ৬ ঘণ্টা

বিধিনিষেধ শিথিলের প্রথম দিন ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মুন্সিগঞ্জের গজারিয়া অংশে ১৩ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট দেখা দিয়েছে। উপজেলার জামালদী থেকে বাউশিয়া পাখির মোড় পর্যন্ত ১৩ কিলোমিটার এলাকায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে আটকা পড়েছেন হাজার হাজার যাত্রী।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) বিকেল পর্যন্ত টানা তৃতীয় দিনের মতো ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এমন বড় ধরনের যানজট লাগল। গত মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকাল থেকে মহাসড়কে এই যানজট শুরু হয়।

জানা গেছে, মঙ্গলবার সকাল থেকে সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধীন নারায়ণগঞ্জের লাঙ্গলবন্দ সেতুর সংস্কার কাজ শুরু হয়। এ কারণে যান চলাচলে ধীর গতি তৈরি হয়। সংস্কার কাজ অব্যাহত থাকায় প্রতিদিনই এখন যানজট হচ্ছে।

ঢাকা থেকে ভবেরচর আসা প্রাইভেটকারের চালক নুরে আলম বলেন, রাস্তায় মানুষ যানজটে আটকা পড়ে কষ্ট পাচ্ছে। সকাল ৬টায় রওনা দিয়ে দুপুর ১২টার দিকে ভবেরচর এসে পৌঁছেছি। অন্য সময় এই পথ আসতে ৪০-৫০ মিনিট সময় লাগে।

কুমিল্লা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী কাভার্ডভ্যানের চালক কামাল উদ্দিন ও জামাল মিয়া জানান, সেতু মেরামতের কাজের কারণে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকবে, এটা তাদের জানা ছিল না। সড়কে এসে এখন তারা দুর্ভোগে পড়েছেন।

ভবেরচর হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ কামাল উদ্দিন ঢাকা পোস্টকে জানান, সেতু সংস্কারের কাজ চলায় গজারিয়া অংশে যানজট রয়েছে। যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করতে হাইওয়ে পুলিশ সব ধরনের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।

এ ব্যাপারে গজারিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রইছ উদ্দিন জানান, মহাসড়কে বড় ধরনের যানজট সৃষ্টি হয়েছে। তবে যানজট নিরসনে কাজ করছে পুলিশ।

ব.ম শামীম/ঢাকা পোষ্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.