মুন্সীগঞ্জে আশ্রয়ণ প্রকল্পের ঘর নির্মাণে অনিয়ম দুর্নীতি (ভিডিও)

মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহারের ঘর নির্মাণ শেষ হওয়ার আগেই ভেঙে পড়ছে দেয়াল। যত্রতত্র ছড়ানো ইট-বালু-কাঠ। কাজ রেখে লাপাত্তা মূল ঠিকাদার। এই সুযোগে পুকুর চুরিতে নেমেছে শ্রমিক-মিস্ত্রিরা। ভূক্তভোগীদের অভিযোগ, টিনের পুরুত্ব যেমন ঠিক নেই তেমনি মানা হয়নি নকশা।

জাতির জনকের স্বপ্ন আর প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যয়ে গড়া দরিদ্রজনের এ আবাসন। মুন্সীগঞ্জ সদরের আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরতে পরতে হয়েছে অনিয়ম দুর্নীতি। ৩৬ মিলির বদলে টিন আছে ৩২ মিলি। ঢালাইয়ে নেই রডের লেশমাত্র। ঠিক নেই সিমেন্ট বালুর মিশ্রণ। তাই হাতের স্পর্শে ভেঙে পড়ছে ইটের দেয়াল, জানালা-দরোজা।

প্রধানমন্ত্রীর এমন উদ্যোগে বেজায় খুশি মুন্সীগঞ্জের ঘরহীন মানুষ। কিন্তু স্বপ্নের ঘর তৈরিতে অনিয়মকারীদের বিরুদ্ধে বঙ্গবন্ধুকন্যার কাছে শাস্তি দাবি করেন তারা।

জেলা প্রশাসনের প্রতিবেদন বলছে, অনিয়ম হয়েছে বহুমাত্রিক। অনুমোদিত নকশা না মেনে ইচ্ছেমতো দুর্নীতি করেছে বর্তমান কমিটি। অভিন্ন অপরাধে বদলি হয়েছেন বেশ ক’জন। এসব দেখেশুনেও দুর্নীতি থামেনি। কমিটির সমন্বয়ক বর্তমান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ অন্যরা মিলে ইচ্ছেমতো অনিয়ম করছে এখনও।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ প্রকল্পের পরিচালক মাহবুব হোসেন বলেন, কমিটি যে ফাইন্ডিং দিয়েছে তার পরিপ্রেক্ষিতে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। একটু আগে আর পরে।

অবিলম্বে স্বপ্নের ঘরে মাথা গুঁজতে চান ভূমিহীনেরা।

ইতিপূর্বে আশ্রয়ণ প্রকল্পে দুর্নীতি হয়েছে। সেই দুর্নীতি প্রমাণ হওয়ায় যারা যারা সম্পৃক্ত ছিলেন প্রত্যেকেরই বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে প্রশাসন। বর্তমান ইউএনও’র সময়েও সেই দুর্নীতির ধারা বহমান রয়েছে। যে কারণে এই নির্মাণ কাজ শেষ করে কবে স্বপ্নের এসব ঘরে বসবাস করতে পারবেন এলাকাবাসী তা যেন অনিশ্চিত।

একুশে টেলিভিশন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.