শ্রীনগরে বিদ্রোহী প্রার্থীর থেকে আর্থিক সুবিধা নেয়ায় অভিযোগ

দ্বিতীয় ধাপে মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার রাঢ়িখাল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফ বেপারী বিরুদ্ধে বিদ্রোহী প্রাথীর কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা নেয়ায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী তোফাজ্জল হোসেনের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ওই বিদ্রোহী প্রার্থী। এ ঘটনায় স্থানীয় আ.লীগের নেতাকর্মীদের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে। তারা মনে করছেন হানিফ বেপারীর মত কিছু সুবিধাবাদী নেতাদের কারণে উপজেলার ১৪টি ইউনিয়নের মধ্যে ৯টিতে নৌকার ভরাডুবি হয়েছে।

এলাকাবাসী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত ১১ নভেম্বর ইউপি নির্বাচনে রাঢ়িখাল ইউনিয়নের আনারস প্রতীকের প্রার্থী হারুন উর রশিদের পক্ষে নির্বাচন করার কথা বলে মোট ৬ লাখ ৭০ হাজার টাকা নেয় হানিফ বেপারী। অনুষ্ঠিত নির্বাচনে নৌকার প্রার্থী আব্দুল বারেক খান বারী বিজয় হলে ইউনিয়ন আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফ বেপারীর টাকা গ্রহনের বিষয়টি ফাঁস হয়। পরে ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ভাইরাল হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, নির্বাচনের দুইদিন আগে যশলদিয়া এলাকার মাঝি বাড়িতে আনারসের নির্বাচন করার কথা বলে এক গোপন বৈঠকে বসেন হানিফ বেপারী। এ সময় বিদ্রোহী প্রার্থীকে ১নং ও ২নং ওয়ার্ডে ভোটে পাশ করানোর কথা বলে প্রার্থী হারুন উর রশিদের ছেলে নজরুল ইসলাম লিটুর কাছ থেকে নগদ ৫ লাখ টাকা নেন হানিফ বেপারী। টাকা নেয়ার সময় উপস্থিত ছিলেন রাঢ়িখাল এলাকার শাহআলম, কবুতর খোলার বাবু খান, বানিয়া বাড়ির কামাল মুন্সী ও যশলদিয়ার ঝন্টু মাঝি। এছাড়াও হানিফ বেপারী পর্যায়ক্রমে লোক মারফতে আরো ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নেন। রাঢ়িখাল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফ বেপারীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোনো প্রার্থীর কাছ থেকে আমি টাকা নেই নাই। একটি মহল আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে।

এ বিষয়ে শ্রীনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাজী মো. তোফাজ্জল হোসেন জানান, টাকা নেয়ার ঘটনায় হানিফ বেপারীর বিরুদ্ধে রাঢ়িখাল ইউনিয়ন আ.লীগের সাবেক সহ-সভাপতি হারুন উর রশিদ একটি লিখিত অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের পরিপেক্ষিতে টাকা নেয়া সময় যারা উপস্থিত ছিলেন এমন কয়েক জনের সাথে ফোনে কথা বলে তার সত্যতা পেয়েছি। বিষয়টি উপজেলা আওয়ামী লীগের কমিটির নেতাদের সাথে আলাপ করে তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

নিউজজি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.